১২  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বেজিংকে চরম হুঁশিয়ারি, চিনের গা ঘেঁষে টহল দিল দুই মার্কিন যুদ্ধজাহাজ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 8, 2018 5:33 pm|    Updated: July 8, 2018 5:33 pm

Two US warships passed through the Taiwan Strait on Saturday

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একদিকে যখন বাণিজ্যিক যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও চিনে, ঠিক তখনই তাইওয়ান ও চিনের মধ্যেকার সরু জলসীমার মধ্য দিয়ে টহলদারি চালাল মার্কিন নৌসেনার দুটি যুদ্ধ জাহাজ৷ দক্ষিণ চিন সাগর নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে চলা ওয়াশিংটন-বেজিং উত্তেজনার মধ্যে যা বাড়তি উত্তেজনা তৈরি করল বলে মনে করছেন আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা৷ তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর, শনিবার সকালে জলসীমায় ঢুকেছিল মার্কিন সেনার দুই যুদ্ধজাহাজ, ইউএসএস মাস্টিন ও ইউএসএস বেনফোল্ড৷

[ইসলামাবাদের মদতেই PoK-তে বাড়ছে জঙ্গিদের দাপাদাপি, আন্দোলনে নাগরিকরা]

দক্ষিণ চিন সাগরের মতোই আমেরিকা ও চিনের মধ্যে একটি স্পর্শকাতর বিষয় হল তাইওয়ান৷ একদিকে তাইওয়ানকে তাদের সঙ্গে যুক্ত করতে চায় বেজিং৷ অন্যদিকে, বেজিংয়ের হাত ধরতে নারাজ তাইপে প্রশাসন৷ এই বিষয়ে প্রথম থেকেই তাইওয়ানকে সাহায্য করে এসেছে আমেরিকা৷ ফলে শনিবারের বিষয়টিকে হালকা ভাবে নিলেও বিবৃতিতে চিনের প্রতি একটি প্রচ্ছন্ন হুমকি দিয়ে রেখেছে আমেরিকা৷ ইউএস প্যাসিফিক ফ্লিটের ক্যাপ্টেন চার্লি ব্রাউন জানান, দক্ষিণ চিন সাগর থেকে তাইওয়ান ও চিনের মধ্যেকার জলসীমা অতিক্রম করে পূর্ব চিন সাগরের দিকে গিয়েছিল যুদ্ধ জাহাজ দুটি৷ তাঁর সংযোজন, কোনও তেমন চুক্তি না থাকলেও তাইপের পাশে সর্বদা রয়েছে ওয়াশিংটন৷ প্রতিক্রিয়া মিলেছে চিনের পক্ষ থেকেও৷ চিনা সংবাদপত্র গ্লোবাল টাইমস জানিয়েছে, তাইওয়ান সমস্যাকে খুঁচিয়ে তোলার চেষ্টা করছে আমেরিকা৷ যাকে মোটেই হালকা নিচ্ছেন না আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরাও৷

[আমেরিকার কানসাসের রেস্তরাঁয় চলল গুলি, মৃত্যু এক ভারতীয় ছাত্রর]

প্রসঙ্গত, এর আগে একাধিকবার তাইওয়ানের পাশে সেনা মহড়া চালিয়েছে চিন৷ উড়িয়েছে বোমারু বিমান৷ চলতি বছরেই জলসীমার মধ্য দিয়ে তাইওয়ানের খুব কাছ দিয়ে গিয়েছে চিনের যুদ্ধ জাহাজ৷ এমনকি একাধিকবার দেশটিকে নিজেদের সঙ্গে যুক্ত করতেও চেয়েছে বেজিং৷ কিন্তু এতে প্রথম থেকেই নারাজ তাইওয়ান৷ তাইওয়ানকে পিছন থেকে সাহায্য করে গিয়েছে আমেরিকা৷ জানা গিয়েছে, শেষবার ২০০৭-তে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লু বুশের সময় তাইওয়ান ও চিনের মধ্যেকার জলসীমা দিয়ে গিয়েছিল মার্কিন সেনার এয়ারক্রাফট কেরিয়ার৷ তারপর ঠিক এগারো বছর পর ২০১৮-তে গেল দুটি মার্কিন যুদ্ধ জাহাজ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে