BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘রাবণবধের মতো আলোর উৎসবে করোনাবধ হোক’, আগাম দীপাবলি-বার্তা ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 7, 2020 5:43 pm|    Updated: November 7, 2020 5:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাসকে (Coronavirus) মহাকাব্যিক চরিত্র রাবণের সঙ্গে তুলনা করলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন (Borris Johnson)। দীপাবলির এক সপ্তাহ আগে ব্রিটেন নতুন করে লকডাউন পর্বে পা রাখার ঠিক আগের মুহূর্তে তাঁর বার্তা, ”রাবণবধের মতো দীপাবলির আলোয় করোনাবধ হোক। অন্ধকার মুছে আলোর জয় হোক।” ১০, ডাউনিং স্ট্রিটে দাঁড়িয়ে বরিস জনসনের এই আগাম দীপাবলি-বার্তা ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। পাশাপাশি তিনি গৃহবন্দি দেশবাসীকে এবছর ভারচুয়াল দীপাবলি পালনের পরামর্শ দিয়েছেন।

মারণ করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ের ধাক্কায় কাঁপছে ইউরোপ। আগের বারের চেয়ে আরও শক্তিশালী হয়ে কোভিড-১৯ (COVID-19) এবার হানা দিয়েছে ব্রিটেন, স্পেন, ইটালি, জার্মানি, বেলজিয়াম-সহ একাধিক দেশে। সংক্রমণ রুখতে বিভিন্ন দেশ ফের কড়াকড়ির পথে হেঁটেছে। স্পেনে জরুরি অবস্থা, ইটালি, বেলজিয়ামে আংশিক লকডাউন। এই অবস্থায় অনেকটা দ্বিধাদ্বন্দ্বের মাঝেও শেষমেশ নতুন করে একমাস ব্যাপী লকডাউনের সিদ্ধান্ত কার্যকর করেছে ব্রিটিশ (UK) প্রশাসন। স্কুল, কলেজ-সহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রেখেই ৬ তারিখ থেকে শুরু হয়েছে গৃহবন্দি দশা।

[আরও পড়ুন: ‘প্রথম দিন থেকেই করোনা মোকাবিলা’, নিশ্চিত জয়ের মুখে দাঁড়িয়ে বার্তা বিডেনের]

তার ঠিক আগে দীপাবলির (Diwali) আগাম শুভেচ্ছা জানালেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। ভিডিও বার্তায় তিনি বললেন, ”জানি, সামনে অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। তবে আমি আত্মবিশ্বাসী যে দেশের সকলে মিলে এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়ী হব।” এরপর তিনি ভারতীয় মহাকাব্যের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ”যেভাবে রাবণবধ করে ঘরে ফেরার সময়ে রাম-সীতার পথ আলোয় আলোয় ভরে উঠেছিল, সেভাবেই দীপাবলির আলো পরাস্ত করুক করোনাকে। আমাদের আগামী ভরে উঠুক আলোয়।”

[আরও পড়ুন: ভিয়েনায় জেহাদি হামলার জের, মসজিদ বন্ধ করছে অস্ট্রিয়ার সরকার]

আগামী ডিসেম্বরের ২ তারিখ পর্যন্ত লন্ডন-সহ গোটা ব্রিটেন গৃহবন্দি। তাই এবার ভারচুয়াল দীপাবলি পালনে জোর দিচ্ছে সরকার। ব্রিটেনে বসবাসকারী ভারতীয় উদ্দেশে জনসনের বার্তা, ”এবার আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে দেখা করে দীপাবলি পালন করতে পারবেন না। একসঙ্গে খাওয়াদাওয়াও হবে না। সেই সিঙাড়া, গুলাবজামুনের স্বাদও হয়ত মিলবে না। কিন্তু বিপদের হাত থেকে বাঁচতে এটুকু ত্যাগ স্বীকারের আবেদন জানাচ্ছি। আপনার এই ত্যাগ অনেকের প্রাণ বাঁচাতে পারে। তবে ভারচুয়ালি আনন্দে মেতে উঠুন, তাও কম কিছু নয়।” ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর এই আশাই সত্যি হয়ে উঠুক, এই প্রার্থনা সবার।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement