BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সিমেন্ট দিয়ে প্লাস্টার করে যুবকের মাথা ঢোকানো হল মাইক্রোওয়েভে, তারপর…

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 9, 2017 8:28 am|    Updated: September 20, 2019 3:24 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাথাটা সিমেন্ট দিয়ে মুড়ে ফেলা হয়েছে৷ তারপর কাঁচা সিমেন্টকে জমিয়ে শক্ত করতে মাথাটি ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে মাইক্রোওয়েভের ভিতর৷ না না, কোনও শুটিংয়ের দৃশ্য নয়৷ বাস্তবেই এমন অদ্ভুত ঘটনা ঘটিয়েছেন ব্রিটেনের এক প্র্যাঙ্কস্টার ও তাঁর বন্ধু৷

আপনি, আমি হয়তো সকলেই জানি, মাথায় সিমেন্টের প্লাস্টার করলে একজন সুস্থ-স্বাভাবিক মানুষের ঠিক কী হাল হতে পারে৷ কিন্তু এই প্র্যাঙ্কস্টার এবং তাঁর বন্ধু হয়তো সে বিষয়ে অবগত ছিলেন না৷ তাই নিশ্চিন্তেই এই কাণ্ড ঘটাচ্ছিলেন৷ কিন্তু তাতে যে লঙ্কাকাণ্ড বাধবে, তা ভাবতেও পারেননি৷ সাত ব্যাগ ভরতি সিমেন্টের মিশ্রণ বন্ধুর মাথায় ঢালেন৷ উদ্দেশ্য? মুখের ছাঁচ বানিয়ে সেই ভিডিও ইউটিউবে পোস্ট করে মানুষের মনোরঞ্জন করা৷ ইউটিউবে এমন নানা প্র্যাঙ্ক ভিডিও আগেও পোস্ট করেছেন তাঁরা৷ কিন্তু এবার তার প্রস্তুতিতে নিজেদেরই নাস্তানাবুদ হতে হল৷

[ডুডলে এই ভারতীয় নারীকে শ্রদ্ধা গুগলের, জানেন তাঁর আসল পরিচয়?]

সিমেন্টে মোড়া মাথাটি মাইক্রোওয়েভে ভরে দেন জমাট বাঁধার জন্য৷ কিন্তু তা এমনভাবে জমাট বাঁধল যে মাইক্রোওয়েভ থেকে মাথা টেনে আর বেরই করা গেল না৷ ২২ বছরের প্র্যাঙ্কস্টার তো তখন দিশেহারা৷ ভাগ্য ভাল যে মাইক্রোওয়েভটিতে বিদ্যুৎ সংযোগ করেননি তাঁরা৷ নাহলে কী হতে পারত, তা ভেবেও শিউরে উঠতে হয়! যাক এটুকু বুদ্ধির জন্য অন্তত শেষরক্ষা হল৷ তবে নিজেরা নিজেদের রক্ষা করতে পারেননি৷

পরিস্থিতি শোচনীয় দেখে বন্ধুর আটকে যাওয়া মাথা উদ্ধার করতে এমার্জেন্সি নম্বরে ফোন করে দমকল বাহিনীকে খবর দেন যুবক৷ পাঁচজন দমকলকর্মীর ঘণ্টাখানেকের চেষ্টায় অবশেষে মাইক্রোওয়েভ থেকে মুক্তি হয় প্র্যাঙ্কস্টারের মাথা৷ ‘বুদ্ধিমান’ দুই বন্ধুর কাণ্ডে যে তারাও বিরক্ত, টুইট করে সে কথা জানাতেও কসুর করেনি দমকলবাহিনী৷ তাদের বক্তব্য, সেই সময় অন্য কোনও এমার্জেন্সিতে তাদের ডাক পড়তেই পারত৷ কিন্তু এমন অবুঝের মতো কাণ্ড ঘটিয়ে শুধুমাত্র নিজেদের এবং কর্মীদের সময় নষ্ট করেছে ওই প্র্যাঙ্কস্টাররা৷

[অশরীরীদের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হয়েছি, চাঞ্চল্যকর দাবি মহিলার]

সিমেন্ট ব্যবহার করে হাত বা পায়ের ছাঁচ বানিয়ে শৌখিন শো-পিস তৈরির ভিডিও ইদানীং সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরতে দেখা যায়৷ নেটদুনিয়ায় বিখ্যাত হতে তাই এই প্র্যাঙ্কস্টাররা এমনই আরও একটি প্রয়াস নিয়েছিল৷ যা শেষমেশ বিভীষিকায় পরিণত হল৷ এতে অবশ্য তাঁদের উৎসাহ কমল কিনা বা উচিত শিক্ষা হল কিনা বলা যাচ্ছে না৷ কারণ যেভাবে মাথা আটকে যাওয়ার ছবিগুলি ভাইরাল হয়েছে, সেটাই হয়তো নতুন কাজের এনার্জি দেবে তাঁদের৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement