BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

Russia-Ukraine War: যুদ্ধের বলি একরত্তিরাও! রুশ সেনার গুলিতে ১ শিশু-সহ ৭ শরণার্থীর মৃত্যু, দাবি ইউক্রেনের

Published by: Paramita Paul |    Posted: March 13, 2022 10:01 am|    Updated: March 13, 2022 10:04 am

Ukarine alleges Russian forces kill 7 civilians near Kyiv | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেন (Ukraine Crisis) থেকে প্রাণ বাঁচিয়ে পালাচ্ছিলেন ওঁরা। কিন্তু শেষরক্ষা হল না। রুশ বাহিনীর গুলিতে প্রাণ গেল এক শিশু-সহ ৭ জনের। এই তথ্য দিয়েছে ইউক্রেনের গোয়েন্দা দপ্তর। পুতিন (Vladimir Putin) বাহিনীর এহেন হত্যালীলা দেখে শিউড়ে উঠছে বিশ্ব।

রবিবার ১৮ দিনে পা দিল রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ (Russia-Ukraine War)। ইতিমধ্যে রুশ গোলায় তছনছ হয়ে গিয়েছে ইউক্রেনের একাধিক শহর। লক্ষ-লক্ষ মানুষ দেশ ছেড়ে পালাচ্ছেন। শরণার্থী হচ্ছেন অন্য দেশের। যুদ্ধবিধ্বস্ত শহর থেকে দেশবাসীকে উদ্ধার করার জন্য মানবিক করিডর করছে ইউক্রেন। যুদ্ধের নিয়ম বলছে, মানবিক করিডরে হামলা করতে পারে না হামলাকারীরা। কিন্তু কোনও নিয়মনীতির তোয়াক্কা করছে না পুতিনবাহিনী।

[আরও পড়ুন: ১৪ ঘণ্টা পরও জ্বলছে ট্যাংরার গুদামের আগুন, ধোঁয়ায় ঢেকেছে এলাকা, আতঙ্কিত স্থানীয়রা]

 

কিয়েভ থেকে ৩৬ কিলোমিটার দূরে পেরেমোগা গ্রাম। শুক্রবার মানবিক করিডরের মাধ্যমে সেখানকার বাসিন্দাদের উদ্ধার করা হচ্ছিল। ঘটনাস্থলেই গুলিবিদ্ধ হন ৭ জন। তাঁদের মধ্যে এক শিশু-সহ একাধিক মহিলাও রয়েছেন। শনিবার তাঁদের সকলের মৃত্যু হয়। আরও কতজন আহত হয়েছেন তা এখনও অজানা। কারোর সঙ্গে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না বলে দাবি ইউক্রেনের।

একাধিক বৈঠকেও মেলেনি রফাসূত্র। যুদ্ধ দীর্ঘদিন চলতে পারে, এই আশঙ্কা বাড়ছে। রাশিয়ার তরফে অবশ্য জানানো হয়েছে, মস্কো কখনওই যুদ্ধ চায়নি। তারা যত দ্রুত সম্ভব যুদ্ধ শেষ করতে চায়। কিন্তু মুখে এমন বললেও ক্রমশই আক্রমণের ঝাঁজ বাড়াচ্ছে পুতিনের দেশ। ইউক্রেনের অভিযোগ, ইচ্ছে করেই জনবসতিকে টার্গেট করছে রুশ (Russia) সেনা। এরই মধ্যে মায়োকোলাইভ শহরে ক্যানসার হাসপাতালেও হামলার অভিযোগ উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে।

[আরও পড়ুন: কংগ্রেসমুক্ত দেশ গড়তে বিজেপি-তৃণমূলের গোপন আঁতাত! অধীরের অভিযোগের সপাট জবাব কুণালের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে