BREAKING NEWS

২১ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৬ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

রাষ্ট্রসংঘের গাড়ির মধ্যেই উদ্দাম যৌনতা, নেটদুনিয়ায় ভাইরাল ভিডিও

Published by: Paramita Paul |    Posted: June 27, 2020 5:20 pm|    Updated: June 27, 2020 7:10 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কয়েক সেকেন্ডের ভিডিওতে তোলপাড় নেটদুনিয়া। সেই বিতর্কিত ভিডিওর জেরে রীতিমতো লজ্জায় পড়েছে রাষ্ট্রসংঘ। কারণ, ব্যস্ত রাস্তায় রাষ্ট্রসংঘের গাড়িতেই উদ্দাম যৌনতায় মেতেছেন দুই নারী-পুরুষ। গাড়ির সামনের আসনে বসে চালক। এদিকে যৌন অসদাচরণ (sexual misconduct) এবং শোষণের (exploitation) বিরুদ্ধে রাষ্ট্রসংঘের কঠোর নীতি রয়েছে। ফলে লজ্জার হাত থেকে বাঁচতে তড়িঘড়ি তদন্তে নেমেছে তাঁরা।

 

টুইটারে ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে দেখা গিয়েছে, রাষ্ট্রসংঘের অফিশিয়াল গাড়ির পিছনের আসনে বসে রয়েছেন এক আধিকারিক। গাড়ির কাঁচ নামানো। এক লাল পোশাক পরিহিত মহিলা দু পা ফাঁক করে ওই আধিকারিকের কোলের উপর বসে রয়েছেন। তাঁরা যে সংগমরত (having sex), ভিডিও ক্লিপিংয়ে তা পরিষ্কার। গাড়ির সামনের সিটে আরও এক ব্যক্তি বসে রয়েছেন। ভিডিওতে কারোর মুখই স্পষ্টভাবে দেখা যায়নি। নম্বর প্লেট দেখে বোঝা গিয়েছে গাড়িটি রাষ্ট্রপুঞ্জের ট্রুস সুপারভিশান সংস্থা (UNTSO)-র। সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, ভিডিওটি ইজরায়েলের তেল আভিভের এক ব্যস্ত রাস্তার। রাস্তার ধারের একটি বাড়ি থেকে ভিডিওটি তোলা হয়েছে।

[আরও পড়ুন : মোদির ‘আত্মনির্ভর ভারত’ মন্ত্রে অনুপ্রাণিত, দেশেই ‘যৌন পুতুল’ তৈরি করবেন যুবক!]

টুইটারে ভিডিওটি ভাইরাল হতেই মুখ বাঁচাতে তড়িঘড়ি মাঠে নামেন রাষ্ট্রসংঘের মুখপাত্র স্টেফান দুজারিক। তিনি বলেন, দু-দিন আগেই তদন্ত শুরু হয়েছে। ওই আধিকারিককে দ্রুত চিহ্নিত করা হবে। প্রসঙ্গত, যৌন অসদাচরণ (sexual misconduct) এবং শোষণের (exploitation) বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপুঞ্জের কঠোর নীতি রয়েছে। অর্থের বিনিময়ে যৌনতাও নিষিদ্ধ। তবে, গাড়িতে থাকা ওই আধিকারিক এবং তাঁরা সঙ্গিনী নিজেদের সম্মতিতে শারীরিক মিলনে লিপ্ত হয়েছিলেন নাকি অর্থের বিনিময়ে শারীরিক সম্পর্ক করেছেন, তা এখনও পরিষ্কার নয়।

[আরও পড়ুন : শিশু যৌনতা, ধর্ষণের ভিডিওর ছড়াছড়ি, নিষিদ্ধ হওয়ার পথে পর্নহাব!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement