২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিপদ কেটেছে পুতিন বিরোধী নাভালনির, ‘নিরপেক্ষ’ তদন্তের ডাক রাষ্ট্রসংঘের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: September 9, 2020 1:42 pm|    Updated: September 9, 2020 1:42 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে ফল মিলেছে চিকিৎসকদের অক্লান্ত পরিশ্রমের। ধীরে ধীরে জ্ঞান ফিরছে রাশিয়ার বিরোধী নেতা অ্যালেক্সেই নাভালনির। এমনটাই জানিয়েছে বার্লিনের চ্যারিটি হাসপাতাল। এহেন পরিস্থিতিতে রাশিয়ার কাছে ‘স্বাধীন ও নিরপেক্ষ’ তদন্তের দাবি জানিয়েছে রাষ্ট্রসংঘ।

[আরও পড়ুন: CPEC নিয়ে মনোমালিন্য! পাকিস্তান সফর বাতিল করলেন চিনা প্রেসিডেন্ট]

মঙ্গলবার রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশনের প্রধান মাইকেল ব্যাকলেট মস্কোর কাছে নাভালনির উপর হামলার তদন্তের আরজি জানান। তিনি বলেন, “এই ঘটনায় সব দিক খুঁটিয়ে স্বাধীন ও নিরপেক্ষভাবে তদন্ত করুক রাশিয়া। এই ঘটনার নেপথ্যে কে বা করা জড়িত তা খুঁজে বের করুক মস্কো। রাশিয়ার জমিতে এই জঘন্য ঘটনায় কার হাত রয়েছে তা খুঁজে বের করা হোক।” রাশিয়ার রাজনৈতিক বিরোধীদের উপর হামলার ঘটনায় পরোক্ষে ষড়যন্ত্রের ইঙ্গিত দিয়ে ব্যাকলেট আরও বলেন, “বিগত এক দশকে রাশিয়ার বিরোধী নেতাদের উপর বিষপ্রয়োগ-সহ হামলার ঘটনা বাড়ছে। রুশিয়ার জমিতেই হোক বা বিদেশের মাটিতে, এহেন হামলার ঘটনা খুবই উদ্বেগজনক। আর অধিকাংশ মামলায় দোষীদের নাগাল না পাওয়া আরও চিন্তার বিষয়।”

গত ২০ তারিখ সাইবেরিয়ার টমস্ক থেকে বিমানে মস্কো ফিরছিলেন নাভালনি। মাঝ আকাশে আচমকাই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। উপায় না দেখে ওমস্ক শহরে বিমানের জরুরি অবতরণ করিয়ে শুরু হয় চিকিৎসা। নাভালনি ঘনিষ্ঠদের প্রাথমিক ধারণা, টমস্ক বিমানবন্দরে তাঁর চায়ে বিষ মেশানো হয়েছে। চিকিৎসকরা জানান, নাভালনির স্নায়ুতন্ত্র ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ছিল। কোমায় আচ্ছন্ন হন তিনি। সেটা বিষের প্রভাবে বলেই ধারণা করা হচ্ছিল। এরপর নাভালনির শারীরিক অবস্থার দ্রুত অবনতি হতে থাকায় জার্মানির বার্লিনে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসকরা পরীক্ষানিরীক্ষার পর বিষ প্রয়োগের ব্যাপারটি নিশ্চিত করেন।

এদিকে, নাভালনির উপর হামলার ঘটনায় রীতিমতো তোলপাড় শুরু হয়েছে আন্তর্জাতিক মঞ্চে। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের দিকেই উঠছে সন্দেহের আঙুল। যদিও সমস্ত অভিযোগ খারিজ করেছে মস্কো। কিন্তু সেই দাবি নস্যাৎ করে রাশিয়াকে অর্থনীতির ময়দানে ‘শিক্ষা দেওয়ার’ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন জার্মান জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল। সব মিলিয়ে নাভালনির সুস্থ হয়ে ওঠার পর গোটা ঘটনায় অনেকটাই আলোকপাত হবে বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা।

[আরও পড়ুন: অপেক্ষার অবসান, সাধারণ নাগরিকদের জন্য ‘স্পুটনিক ফাইভ’ বাজারে আনল রাশিয়া]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement