৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সেনার সঙ্গে যোগাযোগ! চিনের ১০০০ পড়ুয়ার ভিসা বাতিল করল আমেরিকা

Published by: Paramita Paul |    Posted: September 10, 2020 12:58 pm|    Updated: September 10, 2020 1:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের আমেরিকায় (USA) বিপাকে চিনা নাগরিকরা। এবার এক হাজারেরও বেশি ছাত্রছাত্রী ও গবেষকের ভিসা (Visa) বাতিল করল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। চিনা সেনার (PLA) সঙ্গে যোগাযোগ ও দেশীয় নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে তাঁদের ভিসা বাতিল করল আমেরিকা। স্থানীয় সময় বুধবার সন্ধেয় এ কথা ঘোষণা করেছেন ইউএস ডিপার্টমেন্ট অফ হোমল্যান্ড সিকিউরিটির প্রধান চ্যাড উলফ। এরপর ফের একবার চিন-আমেরিকা দ্বৈরথ মাথাচাড়া দেবে বলেই আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

ব্যবসা থেকে মহামারী, জাতীয় সুরক্ষায় উঁকিঝুঁকি হোক কিংবা ভারতের সঙ্গে সম্পর্কের টানাপোড়েন, প্রায় সবকিছু নিয়ে গত এক বছর ধরে চিন (China) আমেরিকার আদায় কাঁচকলা সম্পর্ক। এবার তাতে ঘৃতাহুতি দিল ভিসা নিষিদ্ধ করার পদক্ষেপ। এ প্রসঙ্গে বুধবার চ্যাড উলফ বলেন, ‘চিনের ফিউশন মিলিটারি স্ট্র্যাটেজির সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে এমন ছাত্র ও গবেষকদের ভিসা আগে ব্লক করা হয়েছিল। এবার সরাসরি তা বাতিল করা হল।” তিনি আরও জানিয়েছেন, “এঁরা বিভিন্ন স্পর্শকাতর বিষয়ে গবেষণার তথ্য চুরি করতে পারেন, এই আশঙ্কাতেই এই পদক্ষেপ করা হল।”

[আরও পড়ুন : ‘‌হ্যারিস প্রথম মহিলা প্রেসিডেন্ট হলে তা দেশের জন্য অপমানজনক হবে’, বিস্ফোরক ট্রাম্প‌]

এ বিষয়ে বলতে গিয়ে তিনি আমেরিকার মাটিতে চিনের অনৈতিক ব্যবসা এবং শিল্পক্ষেত্রে গুপ্তচরবৃত্তির কথাও বারবার তুলে ধরেন। তাঁর আরও অভিযোগ, চিন-আমেরিকার করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত গবেষণার তথ্যও চুরি করার চেষ্টা করেছে। পাশাপাশি আমেরিকার উন্নত শিক্ষা ব্যবস্থার সুযোগ নিতে চিন স্ট‌ুডেন্ট ভিসার অপব্যবহার করেছে বলেও অভিযোগ। এখানেই শেষ নয়, চিনে শ্রমিকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার, জিনজিয়া প্রদেশে মুসলিমদের উপর অত্যাচারের কথাও তুলে ধরেন তিনি।

[আরও পড়ুন : CPEC নিয়ে মনোমালিন্য! পাকিস্তান সফর বাতিল করলেন চিনা প্রেসিডেন্ট]

প্রসঙ্গত, গত ২৯ মে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই বিষয়ে ঘোষণা করেছিলেন। সেই ঘোষণাকেই এবার কার্যকরী করা হল বলে খবর। আমেরিকায় চিনা পড়ুয়ার সংখ্যা নিয়ে কড়াকড়ি করার বিষয়ে আগেই নিন্দা করেছে বেজিং। গত এক বছর ধরে আমেরিকার সঙ্গে চিনের সম্পর্কটা ভাল যাচ্ছে না। ট্রাম্প প্রশাসনের এই পদক্ষেপে সেই সম্পর্কে আরও অবনতি হবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement