BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘আমরা নির্বাচন জিতেছি’, সমর্থকদের কাছে আগাম জয় ঘোষণা করে মামলার হুমকি ট্রাম্পের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: November 4, 2020 1:16 pm|    Updated: November 4, 2020 2:25 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ডোনাল্ড ট্রাম্প বনাম জো বিডেন হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের উত্তেজনায় ফুটছে আমেরিকা। হোয়াইট হাউস থেক সরাসরি সমর্থকদের সামনে ‘জয়ধ্বনি’ দিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি সাফ জানান, “আমরা নির্বাচন জিতেছি। এবার কারচুপি হলে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করব। নর্থ ক্যারোলিনার মতো প্রদেশে আমরা জিতেছি। এবার যদি ফল অন্য আসে তার মনে বুঝতে হবে কারচুপি হয়েছে।”

[আরও পড়ুন: রাখে হরি মারে কে! তুরস্কে ভূমিকম্পের তিনদিন পরে ধ্বংসস্তূপ থেকে উদ্ধার একরত্তি]

বুধবার শুরুর দিকে ডেমোক্র্যাটিক প্রার্থী জো বিডেন (Joe Biden) এগিয়ে থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে এগিয়ে যান রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। জর্জিয়া, টেক্সাস, ফ্লোরিডার মতো ‘ব্যাটল গ্রাউন্ড’ স্টেট জিতে লড়াইয়ের ময়দানে ফিরে আসেন তিনি। শেষ পাওয়া খবর পর্যন্ত, জো বিডেনের হাতে রয়েছে ২২৫টি ইলেক্টোরাল ভোট। ট্রাম্পের  (Donald Trump) ঝুলিতে রয়েছে ২১৩টি। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের মতোই নিজেদের গড় রক্ষা করতে সক্ষম হয়েছে দুই দলই। ফলে ফলাফল নির্ভর করছে সুইং স্টেটগুলির উপর। মার্কিন সময় মতে এখন রাত প্রায় সাড়ে বারোটা। অন্যবার এই সময়ে মোটামুটি স্পষ্ট হয়ে যায় যে আগামী চার বছর কার দখলে থাকছে হোয়াইট হাউস। কিন্তু এবার করোনা মহামারীর জেরে মেল-ইন-ব্যালটের মাধ্যমে ভোট দিয়েছেন প্রায় ১০ কোটি মার্কিন জনতা। ফলে সেগুলির হিসেবে কিছুটা সময় লাগছে। যাই হোক, মার্কিন রাজনীতিতে বরাবরই পরবর্তী প্রেসিডেন্ট ঠিক করে ব্যাটল গ্রাউন্ড স্টেটগুলি। এবারও তেমনটাই দেখা যাচ্ছে। ফক্স নিউজ ও সিএনএন জানিয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্পের দখলে গিয়েছে ফ্লোরিডা। ২০১৬ সালেও ‘সানশাইন স্টেট’ দখল করেছিলেন ট্রাম্প। একইভাবে টেক্সাসও দখল করলেন রিপাবলিকান প্রার্থী। উল্লেখ্য, ফ্লোরিডা ও টেক্সাসে ইলেক্টোরাল ভোট বা আসন সংখ্যা যথাক্রমে ২৯ ও ৩৮। তাই এই দুই সুইং স্টেট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ৫৩৮ আসনের ‘ইলেক্টোরাল কলেজ’-এ ম্যাজিক ফিগার ২৭০।

এদিকে, বিডেনের ভাষণের পরই আজ সমর্থকদের কাছে ‘জয়ের বার্তা’ দিয়ে দেন ট্রাম্প। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, এই নির্বাচনে তাঁর জয় হয়েছে। এবার ফলাফল যদি অন্য কিছু হয় তাহলে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করবে তাঁর দল। নভেম্বরের ৩ তারিখের পর মেল-ইন-ব্যালট জমা নেওয়ার বিরোধিতা শুরু থেকেই করেছিলেন তিনি। আজও ফের সেই কোথায় তুলে ধরেন তিনি। তাঁর অভিযোগ, নির্বাচন শেষ হওয়ার পর ব্যালট জমা নিলে কারচুপি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

[আরও পড়ুন: চোরাগাপ্তা হামলার বদলা? ‘সার্জিকাল স্ট্রাইকে’ আল কায়দার ৫০ জেহাদিকে খতম করল ফ্রান্স]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement