২৩ ফাল্গুন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ৯ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বড় ধাক্কা পাকিস্তানের! লস্করের বিদেশি জঙ্গি সংগঠনের তকমা বজায় রাখল আমেরিকা

Published by: Biswadip Dey |    Posted: January 15, 2021 7:06 pm|    Updated: January 15, 2021 7:15 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: FATF-এর (ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স) ধূসর তালিকা থেকে বেরতে মরিয়া পাকিস্তান (Pakistan)। এর মধ্যেই ফের বড়সড় ধাক্কা খেল ইসলামাবাদ। লস্কর-ই-তইবার উপরে বিদেশি জঙ্গি সংগঠন তথা FTO তকমা বজায় রাখল আমেরিকা (US)। মোট আটটি জঙ্গি দলের উপরে এই তকমা তুলতে রাজি হয়নি ওয়াশিংটন। যার মধ্যে রয়েছে পাকিস্তানের আরও এক জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-ঝাংভিও। ফলে আগামী মাসে FATF-এর বৈঠকের আগে চাপ আরও বাড়ল ইমরান খানের উপরে।

[আরও পড়ুন: কিমের ‘শক্তিশেল’, বিশ্বের ‘সবথেকে শক্তিশালী’ ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন উত্তর কোরিয়ার]

২০০১ সালের ডিসেম্বরে প্রথমবার লস্কর-ই-তইবাকে বিদেশি জঙ্গি সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করেছিল মার্কিন প্রশাসন। দু’দশক পেরিয়ে এসেও সেই তকমা ঘোচাতে পারেনি লস্কর। যা এই মুহূর্তে পাকিস্তানের গলায় নতুন কাঁটা হয়ে বিঁধছে। কেননা এই মুহূর্তে ইমরান খানের দেশ তাকিয়ে রয়েছে FATF-এর বৈঠকের দিকে। বৈঠকের ঠিক আগেই এই খবর স্বস্তি দেবে না তাদের।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের জুন মাসে ধূসর তালিকাভুক্ত করা হয় ইমরান খানের দেশকে। বারবার চেষ্টা করেও সেই তালিকা থেকে বেরতে পারেনি ইসলামাবাদ। আগামী বৈঠকেও পর্যালোচনা করা হবে পাকিস্তানের পরিস্থিতি। ধূসর তালিকার ছায়া থেকে বেরতে হলে সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে যে কঠোর পদক্ষেপ নিতেই হবে, সেটা পরিষ্কার বুঝতে পেরেছে ইসলামাবাদ। সম্প্রতি জাকিউর রহমান লাকভিকে (Zakiur Rehman Lakhvi) পাঁচ বছরের জন্য জেলে পাঠিয়েছে পাক আদালত। পাশাপাশি মাসুদ আজহারের (Masood Azhar) বিরুদ্ধে জারি হয়েছে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা।

এমন দুই কুখ্যাত জঙ্গির বিরুদ্ধে এই ধরনের পদক্ষেপের মাধ্যমে নিজেদের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে চেয়েছে পাকিস্তান। স্বাভাবিক ভাবেই এর পিছনে তাদের কতটা সদিচ্ছা রয়েছে আর কতটা কৌশল, তা নিয়ে সন্দিহান ওয়াকিবহাল মহল। তাদের বিরুদ্ধে আক্রমণ জারি রেখেছে ভারতও। বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব আগেই ইসলামাবাদকে খোঁচা মেরে জানিয়েছেন, এসবই FATF -এর (ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স) ধূসর তালিকা থেকে বেরনোর চেষ্টা।

[আরও পড়ুন: এতদিন ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি কেন? ফেসবুক, টুইটারকে তোপ উইকিপিডিয়ার প্রতিষ্ঠাতার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement