BREAKING NEWS

১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মাথাপিছু ১০ লক্ষ ডলার, হাইতিতে অপহৃত মার্কিন ধর্মপ্রচারকদের প্রাণের দাম জানাল দুষ্কৃতীরা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: October 20, 2021 10:00 am|    Updated: October 20, 2021 10:00 am

US Vows To Help Free Missionaries Kidnapped In Haiti | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাইতিতে (Haiti) অপহৃত ১৭ জন খ্রিষ্ট ধর্মপ্রচারকের মুক্তির জন্য সমস্ত সম্ভব চেষ্টা করবে আমেরিকা। মঙ্গলবার এমনটাই আশ্বাস দিলেন মার্কিন বিদেশ সচিব অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন। এদিকে, পণবন্দিদের মুক্তির জন্য জনপ্রতি ১০ লক্ষ ডলার দাবি করেছে দুষ্কৃতীরা।

[আরও পড়ুন: তালিবানের বোধোদয়! হঠাৎই আফগানিস্তানে পোলিও কর্মসূচিতে সায় জেহাদিদের]

রাজনৈতিক ডামাডোলের মাঝেই হাইতিতে গত শনিবার আমেরিকা ও কানাডার ১৭ জন খ্রিষ্ট ধর্মপ্রচারককে অপহরণ করা হয়। খোঁজ নেই তাঁদের পরিবারেরও। পরিবারের শিশুদেরও অপহরণ করা হয়েছে বলে খবর। এই ঘটনার নেপথ্যে ‘400 Mawozo’ নামের একটি গ্যাংয়ের হাত রয়েছে বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। পণবন্দিদের মুক্তির জন্য জনপ্রতি ১০ লক্ষ ডলার দাবি করেছে দুষ্কৃতীরা। এই প্রসঙ্গে ইকুয়েডরে এক সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন বিদেশ সচিব ব্লিঙ্কেন বলেন, “এই বিষয়এ লাগাতার কাজ করছি আমরা। অপহৃতদের মুক্ত করতে সমস্ত সম্ভব চেষ্টা করবে আমেরিকা।” এই ঘটনার তদন্তে এফবিআই জড়িত রয়েছে বলেও জানান ব্লিঙ্কেন।

হাইতির আইনমন্ত্রী লিৎজ কুইতেল জানিয়েছেন, আমেরিকা ও কানাডার ১৭ জন খ্রিষ্ট ধর্মপ্রচারকের অপহরণের নেপথ্যে রয়েছে ‘400 Mawozo’ গ্যাং। বেশ কিছুদিন ধরেই ক্যারিবিয়ান দেশটিতে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে এই দুষ্কৃতী দলটি। অপহরণের বেশ কয়েকটি ঘটনায় জড়িত তারা। আইনমন্ত্রীর কথায়, অপহরণের পর বিশাল অঙ্কের মুক্তিপণ চায় তারা। তবে আলোচনার মাধ্যমে সেই অঙ্ক কিছুটা কমিয়ে আনা সম্ভব হলেও পণ না দিলে অপহৃতদের প্রাণ নাসের আশঙ্কা থাকে।

হাইতির প্রেসিডেন্টকে খুনের পর থেকেই সেখানে রাজনৈতিক ডামাডোল চলছে। এর মাঝেই সেখানকার অনাথ আশ্রমের দায়িত্ব ছেড়ে দেশে ফিরছিলেন ১৭ মার্কিন নাগরিক। তাঁরা খ্রিষ্ট ধর্ম প্রচার করতে ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের এই দেশে গিয়েছিলেন। শনিবার সন্ধেয় বিমানবন্দরগামী বাসে ছিলেন তাঁরা। সেখান থেকেই তাঁদের অপহরণ করা হয় বলে অভিযোগ। প্রসঙ্গত, জুলাই মাসে ক্যারিবিয়ান দেশটির রাজধানী পোর্ট-অ-প্রিন্সে নিজের বাসভবনেই খুন হন প্রেসিডেন্ট মোয়েস বলে জানিয়েছেন দেশটির অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী ক্লড জোসেফ। একদল অজ্ঞাতপরিচয় সশস্ত্র ব্যক্তি প্রেসিডেন্টের বাসভবনে আকস্মিকভাবে ঢুকে পড়ে হামলা চালায়। ওই ঘটনায় আহত হন ফার্স্ট লেডি মার্টিন মোয়েস। তাঁকে হাসপাতালে ভরতি করানো হয়। কারা এই হামলা চালাল তার তদন্ত শুরু হয়েছে। কেনই বা হামলা চালাল তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: মহাকাশে চক্কর চিনা আণবিক ক্ষেপণাস্ত্রের, তবে কি ব্যর্থ মার্কিন মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম?]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে