BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘ব্রেক্সিট’ নিয়ে ব্রিটেনে শুরু গণভোট, উৎকন্ঠায় ভারতও

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 23, 2016 4:23 pm|    Updated: June 23, 2016 4:23 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইউরোপীয় ইউনিয়নে ব্রিটেন থাকবে নাকি বেরিয়ে আসবে, সিদ্ধান্ত নিতে বৃহস্পতিবার সে দেশের জনতা ভোটদান শুরু করেছেন৷ ঐতিহাসিক গণভোটে সামিল হলেন প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনও| পাশাপাশি ভোট দিয়েছেন রেকর্ড সংখ্যক মানুষ৷ ভোট চলবে ব্রিটেনের সময় রাত দশটা পর্যন্ত৷ আজ সকাল থেকেই গোটা ব্রিটেনজুড়ে উৎসবের মেজাজেই ভোট-পর্ব দেখা গিয়েছে৷ যেভাবে মধ্যবয়সি থেকে তরুণ প্রজন্ম উৎসাহের সঙ্গে রাস্তায় ভোটের লাইনে দাঁড়িয়েছে, তা এক কথায় অভূতপূর্ব৷ বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম এদিনও ব্রিটেনের ইউরোপীয় ইউনিয়নে থাকার বিষয়েই ফের সরব৷ তবে যেসব প্রবীণ ভোটারকে দেখা গিয়েছে, তাঁদের অধিকাংশের মুখেই স্বাতন্ত্রের কথা৷ বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বিভিন্ন এলাকায় প্ল্যাকার্ড, পোস্টার হাতে তরুণ প্রজন্মের পাশাপাশি প্রবীণ ভোটারদেরও দেখা গিয়েছে৷ ৮.৬ কোটি নাগরিক এই ভোটে অংশ নিচ্ছেন৷ এদিন বেলা বাড়তেই ব্রিটেনের একাধিক শহরে তুমুল বৃষ্টি হয়েছে৷ বৃষ্টির কারণে বহু মানুষ অনেক দেরিতে ভোট দিতে গিয়েছেন৷

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের দাবি, রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথও ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছেড়ে বেরিয়ে আসার পক্ষে৷ আবার কোনও মানুষ একা দ্বীপের মতো বাঁচতে পারে না বলে মন্তব্য করে ইউরোপীয় ইউনিয়নে থেকে যাওয়ার পক্ষেই মত দিয়েছেন জেমস বন্ডের ভূমিকায় অভিনয় করা ড্যানিয়েল ক্রেগ৷ লন্ডনের প্রাক্তন মেয়র বরিস জনসনের দাবি, বৃহস্পতিবার ব্রিটেনের ‘স্বাধীনতা দিবস’৷ তাঁকে আক্রমণ করে ‘ব্রেক্সিট’ সমর্থকদের নাৎসি বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন৷ লেবার পার্টির এমপি ও প্রাক্তন মন্ত্রীকে টুইটারে ছেলে-মেয়ে এবং নাতি-নাতনিদের খুনের হুমকি পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে৷ সব মিলিয়ে উত্তেজনা চরমে৷

‘ব্রেক্সিট’-এর অর্থ, ব্রিটেনের এক্সিট অর্থাত্‍ ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বের হয়ে আসা৷ সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, লড়াই হবে তুল্যমূল্য৷ তবে মধ্যবয়সি ও তরুণ প্রজন্ম প্রস্তাবের বিপক্ষে৷ অন্যদিকে, প্রবীণদের অধিকাংশই চাইছেন ব্রিটেনের স্বাতন্ত্র্য৷ সবচেয়ে আশঙ্কার বিষয়, এই আবহে ইতালি, ডেনমার্ক, ফ্রান্স ও ইউরোপীয় ইউনিয়নে থাকা আরও কয়েকটি দেশের জাতীয়তাবাদী দলগুলি গণভোটের দাবি তুলেছে৷ পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক৷ সেবি এবং স্টক এক্সচেঞ্জও লগ্নিকারীদের সম্ভাব্য প্রতিক্রিয়ার আশঙ্কায় নানা রকম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে৷

আজকের গণভোটে ইউরোপের ছবিটাই পাল্টে যেতে পারে৷ বদলে যেতে পারে মহাদেশের আর্থিক ও রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ৷ সেই পরিস্থিতিতে শেষ মুহূর্তেও দেশের মানুষের কাছে ব্রেক্সিট-এর বিপক্ষে ভোট দেওয়ার আবেদন জানান প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরন৷ তাঁর আবেদনের পক্ষে খোলা চিঠি লিখে সমর্থন জানিয়েছেন প্রায় ১২০০ শিল্পপতি ও শতাধিক নামী সংস্থা৷ তাতে তারা হুঁশিয়ারি দিয়েছে, ইইউ থেকে বেরিয়ে গেলে ব্রিটেনের অর্থনীতি ও কর্মসংস্থানে বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে৷ আবার ছোট শিল্প সংস্থাগুলি অনেকে বেরিয়ে যাওয়ার পক্ষে৷ সমীক্ষায় প্রকাশ, থেকে যাওয়ার পক্ষে মনস্থির করেছেন ৪৫ শতাংশ ভোটার৷ বিপক্ষে ৪৪ শতাংশ৷ ১১ শতাংশ ভোটার এখনও দোদুল্যমান৷ নিরাপত্তা, সন্ত্রাসদমন ও বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ইউরোপীয় ইউনিয়নে থাকলেই ব্রিটেন লাভবান হবে বলে সওয়াল করেছেন ক্যামেরন৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement