BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ১৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বাংলাদেশে অবৈধভাবে রয়েছে অনেক ভারতীয়! বিতর্কিত অভিযোগ বিএনপি ঘনিষ্ঠ অধ্যাপকের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: February 15, 2020 7:08 pm|    Updated: February 15, 2020 7:08 pm

Asif Nazrul urged hasina government for a meeting against illegal Indians

ড. আসিফ নজরুল

সুকুমার সরকার, ঢাকা: বাংলাদেশে ভারতের অনেক নাগরিক অবৈধভাবে বসবাস করছে। তাদের বাংলাদেশ থেকে তাড়ানোর জন্য সমাবেশ করলে এক কোটি মানুষ জড়ো হবে। সম্প্রতি এমনই দাবি জানিয়েছেন বিএনপি ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল।

আগাগোড়া বিএনপির সমর্থনকারী ওই অধ্যাপক সম্প্রতি তাঁর ফেসবুক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে সোশ্যাল মিডিয়াতে এই বিষয়ে একটি পোস্ট করেছেন। তাতে ভারতের বিরুদ্ধে তোপ দেখে তিনি উল্লেখ করেছেন, ভারতে নাকি অবৈধ বাংলাদেশিদের বিরুদ্ধে আয়োজিত সমাবেশে একলক্ষ মানুষ এসেছে। একইভাবে বাংলাদেশের সরকার যদি এখানে অবৈধভাবে বসবাসকারী ভারতীয়দের বিরুদ্ধে সমাবেশ করতে দেয়। তাহলে কোটি লোক জড়ো হবে।

[আরও পড়ুন: বাংলাদেশের শরণার্থী শিবিরে ‘রোহিঙ্গা মুসলিমদের’ হাতে আক্রান্ত খ্রিস্টান উদ্বাস্তুরা ]

 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (CAA) পাশ হওয়ার পরেই ভারতে অবৈধভাবে বসবাসকারী মুসলিমদের তাড়ানোর জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়েছে বিভিন্ন সংগঠন। তবে এখনও পর্যন্ত সব থেকে বড় জমায়েত করা হয়েছিল গত রবিবার মুম্বইয়ে। অবৈধভাবে ভারতে বসবাসকারী বাংলাদেশিদের তাড়ানোর জন্য সেখানে একলক্ষ মানুষকে নিয়ে সভা করে রাজ ঠাকরের মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনা। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনে আয়োজিত ওই সভা থেকে ভারতে বসবাসকারী অনুপ্রবেশ কারীদের তাড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়। ওই সমাবেশ থেকে রাজ ঠাকরে পরিষ্কার ঘোষণা করেন, ‘আমাদের দেশ ধর্মশালা নাকি যে কেউ এসে থেকে যাবে? সব দেশই কঠোর সিদ্ধান্ত নেয়, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া বা অন্য কোনও দেশ। অনুপ্রবেশকারীদের জেলে বন্দি করে রাখে ওরা, নিজের দেশে ফেরত পাঠিয়ে দেয়। আমরাই শুধু মানবিকতার কথা বলি।’

[আরও পড়ুন: খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে শেখ হাসিনার দ্বারস্থ বিএনপি ]

 

CAA’র বিরোধিতা করে যাঁরা পথে নেমেছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে মহামোর্চা গড়ে তোলা হল বলেও ওই সভা থেকে হুমকি দেন তিনি। এরপরও বিক্ষোভকারীরা না থামলে ইটের জবাব পাথরের মাধ্যমে দেওয়ার কথা উল্লেখ করেন। হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ভারতীয় মুসিলমদের একাংশ কেন সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করছে তা বুঝতে পারছি না। এই আইনের ফলে তাদের কোনও ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। তাসত্ত্বেও যদি ওরা ক্রমাগত বিক্ষোভ দেখায় তাহলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে