BREAKING NEWS

১৪ শ্রাবণ  ১৪২৮  শনিবার ৩১ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘টিকার নামে মুলো দেখাচ্ছে সবাই’, ভ্যাকসিনের অভাবে ক্ষোভপ্রকাশ বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রীর

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: June 23, 2021 1:01 pm|    Updated: June 23, 2021 1:01 pm

Bangladesh foreign minister expresses frustration over inadequate vaccine supply | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

সুকুমার সরকার, ঢাকা: করোনার মারে নাজেহাল বাংলাদেশ (Bangladesh)। দ্রুত বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা। এহেন পরিস্থিতিতে দ্রুত টিকাকরণের পথে হাঁটতে চাইছে হাসিনা সরকার। কিন্তু পর্যাপ্ত মাত্রায় ভ্যাকসিনের ডোজ না মেলায় অনেকটাই মন্থর হয়েছে সেই কর্মসূচী। আর তা নিয়ে রীতিমতো বঞ্চনার অভিযোগ তুলে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন বিদেশমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।

[আরও পড়ুন: বাড়ছে করোনার প্রকোপ, সংক্রমণ রুখতে গোটা দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন ঢাকা]

করোনা রুখতে উন্নয়নশীল দেশগুলিকে টিকা জোগান দেওয়ার কথা বলছে আন্তর্জাতিক মঞ্চ। এর জন্য কোভ্যাক্স-সহ একাধিক ভিন্ন প্রকল্পও রয়েছে। তবুও পর্যাপ্ত প্রতিষেধক পাচ্ছে না বাংলাদেশ। এই বিষয়ে ক্ষোভপ্রকাশ করে বিদেশমন্ত্রী মোমেন বলেন, “কোভ্যাক্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ-সহ এশিয়ার ১৮টি দেশকে নতুন করে ১ কোটি ৬০ লক্ষ ডোজ টিকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে হোয়াইট হাউস। আরও ৩০টি দেশ ও জোটকে যুক্তরাষ্ট্র সরাসরি যে ১ কোটি ৪০ লক্ষ টিকা দেবে, সেই তালিকায়ও রয়েছে বাংলাদেশের নাম।” বলে রাখা ভাল, সোমবার হোয়াইট হাউস বিশ্বজুড়ে করোনা মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্রের নিজের ভাণ্ডার থেকে কোভ্যাক্সের আওতায় এবং সরাসরি সাড়ে পাঁচ কোটি টিকা বণ্টনের পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে। ওই পরিকল্পনায় বিশ্বের কোন দেশে কত টিকা পাঠানো হবে, সে তথ্য দেওয়া হয়েছে। এনিয়ে মোমেন বলেন, “জি-৭ দেশগুলো কিছুদিন আগে বৈঠক করে বলেছে, তারা ১০০ কোটি ডোজ টিকা দরিদ্র দেশগুলোকে দেবে। এ নিয়ে শুধু গল্পই শুনছি। কিন্তু দেওয়ার জন্য কেউ উদ্যোগ নিচ্ছে না। টিকার নামে মুলো দেখাচ্ছে সবাই।”

এদিকে, করোনায় মৃত্যুপুরী হয়ে উঠেছে খুলনা বিভাগ। প্রতিদিন বিভাগের ১০ জেলায় করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। কোনওভাবেই থামানো যাচ্ছে না মৃত্যুমিছিল। দেশের উত্তর জনপদ জেলা শুধু রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে সোমবার ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিদেশমন্ত্রী মোমেন টিকা সংকট প্রসঙ্গে বলেন, “সবচেয়ে বড় সমাধান হবে যখন আমরা নিজেরাই টিকা তৈরি করব। নিজেরা টিকা তৈরি করলে আর অন্যের দিকে চেয়ে থাকতে হবে না।” উল্লেখ্য, ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউটের সঙ্গে টিকা ক্রয় করার চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল ঢাকা। কিন্তু ভারতে করোনা পরিস্থিতি গুরুতর হওয়ায় টিকা রপ্তানি করেছে না সেরাম। এনিয়ে দুই দেশের মধ্যে কিছুটা চাপানউতোরও চলছে।

[আরও পড়ুন: বাড়ছে করোনার প্রকোপ, সংক্রমণ রুখতে গোটা দেশ থেকে বিচ্ছিন্ন ঢাকা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement