২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মাত্র এক মাসে বাংলাদেশে ধর্ষণের শিকার ১০৭ মহিলা ও শিশু

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: August 11, 2020 9:18 pm|    Updated: August 11, 2020 9:18 pm

An Images

অঙ্কন: সুযোগ বন্দ্যোপাধ্যায়

সুকুমার সরকার, ঢাকা: প্রকাশ্যে এল নারী নির্যাতনের ভয়াবহ তথ্য। মাত্র এক মাসে বাংলাদেশে ধর্ষণের শিকার ১০৭ মহিলা ও শিশু। আর সব মিলিয়ে জুলাই মাসে ২৩৫ জন মহিলা ও কন্যাশিশুর উপর নির্যাতন ঘটেছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

[আরও পড়ুন: বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন আনল রাশিয়া, প্রয়োগ করা হল পুতিনকন্যার শরীরে]

মঙ্গলবার বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষরিত এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এই ভয়াবহ তথ্য। দেশের ১৩টি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত ঘটনার তথ্যের ভিত্তিতে এই প্রতিবেদন তৈরি করেছে সংস্থাটি। প্রতিবেদনে বলা হয়, পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ অনুসারে ২০২০ সালের জুলাই মাসে মোট ২৩৫ জন মহিলা ও কন্যাশিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এরমধ্যে ধর্ষণের শিকার ১০৭ জন। এরমধ্যে আবার গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন ১৪ জন। সংস্থাটি বলছে, এই এক মাসে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে তিনজনকে। এছাড়া ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে নয় জনকে। এছাড়া ১০৭টি ধর্ষণের ঘটনার মধ্যে শিশু ছিল ৭২ জন।

পরিসংখ্যান মতে, জুলাই মাসে শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছেন তিনজন মহিলা। নারী অপহরণের ঘটনা ঘটেছে মোট পাঁচটি। বিভিন্ন কারণে হত্যা করা হয়েছে ৪৬ জন মহিলা ও কন্যাশিশুকে। যৌতুকের কারণে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ১৫ জন। এরমধ্যে যৌতুকের কারণে হত্যা করা হয়েছে সাতজনকে। গৃহপরিচারিকা নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ছয়জন। শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন চারজন। এছাড়া বিভিন্ন নির্যাতনের কারণে ১০ জন আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয়েছেন এবং আত্মহত্যার প্ররোচণার শিকার হয়েছেন আরও দুইজন। ১৮ জনের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে এবং বাল্যবিয়ের শিকার হয়েছেন পাঁচজন। আর পাঁচ কন্যাশিশু সাইবার ক্রাইমের শিকার হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে প্রতিবেদনে। সব মিলিয়ে করোনা কালে বাংলাদেশে যে মহিলাদের উপর ক্রমে নির্যাতন বাড়ছে তা স্পষ্ট।

[আরও পড়ুন: তাইওয়ান সফরে মার্কিন আধিকারিক, শক্তি প্রদর্শনে যুদ্ধবিমান পাঠাল চিন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement