BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনে বিয়ে করার জের, চাকরি থেকে বরখাস্ত সরকারি আধিকারিক

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: April 10, 2020 6:43 pm|    Updated: April 10, 2020 6:43 pm

An Images

সুকুমার সরকার, ঢাকা: গোটা বিশ্ব যখন নোভেল করোনা ভাইরাসের প্রকোপে কাঁপছে। সংক্রমণ ঠেকাতে লকডাউন (Lock down) -সহ নানা ব্যবস্থা নিচ্ছে বিভিন্ন দেশ। তখন বাংলাদেশের একজন সরকারি আধিকারিক মনের সুখে বিয়ের বাদ্যি বাজিয়ে চাকরি হারালেন। সাত এপ্রিল ঘটনাটি ঘটেছে নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও। এই উপজেলায় অবস্থিত আমিনপুর পুরসভার পরিবার পরিকল্পনা দপ্তরের পরিদর্শক হিসেবে কর্তব্যরত ওই যুবকের নাম শাহিন কবির।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নারায়ণগঞ্জকে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা চিহ্নিত করে লকডাউনের ঘোষণা করে সরকার। এর মাঝেই গত মঙ্গলবার সনমান্দি গ্রামের জামালউদ্দিনের মেয়ে নাদিয়া আক্তারকে বিয়ে করেন সোনারগাঁও পুরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের গোচাইট গ্রামের পিয়ার হোসেনের ছেলে শাহিন। বিয়ের দিন অনেক আগে থেকেই ধার্য করা ছিল। সেই মতো ৭০ জন বরযাত্রী নিয়ে শাহিন বিয়ে করতে যান। বিয়েবাড়িতে আমন্ত্রিত অতিথিদের নিয়ে খাওয়া দাওয়াও হয়। রীতিমতো কাজী এসে বিয়ে করান। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই উত্তেজনা ছড়ায় ওই এলাকায়। করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে সবাই যখন কাঁপছে তখন এত লোক নিয়ে বিয়ে করতে আসায় বরপক্ষের সমালোচনা করেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

[আরও পড়ুন: করোনা যুদ্ধে হাসিনার পাশে মোদি, বাংলাদেশকে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন দিচ্ছে ভারত ]

 

পরে শাহিন কবিরকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমান আদালত। এরপর বৃহস্পতিবার চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় তাঁকে। এপ্রসঙ্গে সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহম্মদ সাইদুল ইসলাম বলেন, ঢাকা বিভাগীয় পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয় থেকে শাহিনকে বরখাস্ত করে আদেশের একটি কপি সোনারগাঁওে পাঠানো হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, দেশব্যাপী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে গত ৭ এপ্রিল একই উপজেলার সনমান্দি ইউনিয়নে গিয়ে বিয়ের জন্য ওই কর্মকর্তা জনসমাগম করেছেন। তাঁর এই কাজ বর্তমান আইন ও সরকারি চাকরি বিধির পরিপন্থী। তাই তাঁকে সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা-২০১৮ এর বিধি ১২ মোতাবেক চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হল। তবে আইন মেনে তিনি খোরপোষভাতা পাবেন।

[আরও পড়ুন: করোনার মারে ত্রস্ত বাংলাদেশ, মহামারি ঠেকাতে চিকিৎসক দল পাঠাচ্ছে চিন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement