৪ ভাদ্র  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ভারত-বাংলাদেশের বহুমুখী সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করতে উদ্যোগ নিল দু’দেশ। সোমবার রাজশাহী পুরনিগমের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের সঙ্গে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনার শ্রীমতী রীভা গাঙ্গুলি দাশের সৌজন্য বৈঠকের সময় এই বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

[আরও পড়ুন- উদ্ধার অবসরপ্রাপ্ত সরকারি আধিকারিকের পচাগলা দেহ, চাঞ্চল্য যাদবপুরে]

এই বৈঠকে রাজশাহীর উন্নয়ন ও একে পরিচ্ছন্ন ও সবুজ শহর হিসেবে গড়ে তুলতে পুরনিগমের বিভিন্ন উদ্যোগের প্রশংসা করেন রীভাদেবী। বিভিন্ন সময়ে রাজশাহীতে নানা অনুষ্ঠান করে ভারতীয় সহকারী হাই কমিশন। সেগুলিতে সহযোগিতার জন্যও ধন্যবাদ জানান মেয়রকে। রাজশাহী-সহ বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল ও ভারতের মধ্যে সাংস্কৃতিক ভাবধারা বিনিময়ের জন্য বিভিন্ন পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। সে বিষয়ে আলোচনা করার পাশাপাশি ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কের বিদ্যমান ‘সোনালী অধ্যায়’ নিয়ে হাই কমিশনার ও মেয়র উভয়ই সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।

রাজশাহী নগর উন্নয়নে গৃহীত প্রকল্পগুলি বাস্তবায়নে ভারত সরকারের সহায়তার জন্য রীভাদেবীকে ধন্যবাদ জানান খায়রুজ্জামান লিটন। সেই সঙ্গে রাজশাহীতে ভারত সরকারের কাছ থেকে আরও বিনিয়োগের আশাও প্রকাশ করেন তিনি। পরিকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প এবং বাণিজ্য বিষয়ে আরও সহযোগিতার পাশাপাশি দু’দেশের মানুষকে আরও কাছাকাছি আসার আহ্বান জানান। শিক্ষাজীবনে ভারতে কাটানো সময়ের স্মৃতিচারণ করেন এবং ভারত কীভাবে তার জীবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান দখল করে আছে তা উল্লেখ করেন। বৈঠকে উভয়পক্ষই ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যকার বহুমুখী সম্পর্ক আরও শক্তিশালীকরণের গুরুত্ব নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। হাই কমিশনার রাজশাহী নগর ভবনে বঙ্গবন্ধু কর্নার পরিদর্শন করেন এবং পরিদর্শক বইতে স্বাক্ষর করেন।

[আরও পড়ুন- কাশীপুর রোডে প্লাস্টিক কারখানায় বিধ্বংসী আগুন, ব্যাপক ক্ষতির মুখে ব্যবসায়ী]

এর আগে ভারতীয় হাই কমিশনার রাজশাহীর সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাকাডেমি এবং ভারত সরকারের অর্থায়নে নির্মিত বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী ভবন পরিদর্শন করেন। সারদার অ্যাকাডেমিতে সাইবার অপরাধ ও তথ্যপ্রযুক্তিগত প্রশিক্ষণ সুবিধা রয়েছে। ২০১৮ সালের জুলাই মাসে দুই দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীরা ভবনটি উদ্বোধন করেন। সফরকালে বাংলাদেশ পুলিশ অ্যাকাডেমির অধ্যক্ষ ও পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক মহম্মদ নাজিবুর রহমান হাই কমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশকে স্বাগত জানান। অ্যাকাডেমি বিষয়ে উপস্থাপনার পর তাঁকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

এরপর অ্যাকাডেমির প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশে দেওয়া বক্তব্যে, তাঁদের বাংলাদেশের আইন-শৃঙ্খলার ভবিষ্যৎ রক্ষাকারী হিসেবে অভিহিত করেন। মানবিক বোধ না হারিয়ে পেশাদারিত্বের সঙ্গে জনসাধারণের সেবা করার জন্য অনুপ্রাণিত করেন। সোমবারের এই অনুষ্ঠানে তাঁর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহীতে নিযুক্ত ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার শ্রী সঞ্জীব কুমার ভাটি এবং ঢাকাস্থিত ভারতীয় হাই কমিশনের দ্বিতীয় সচিব (ভিসা ও কনস্যুলার) বিশালজ্যোতি দাস।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং