২৯ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ঠেকেও শিক্ষা নেয়নি ঢাকা৷ ফের একবার বিধ্বংসী আগুনের কবলে পড়ল বাংলাদেশের রাজধানী৷ শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকার মিরপুরে আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায় অন্তত তিন হাজার ঘর৷ ঘটনায় আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন৷ যদিও কারও মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি৷

[আরও পড়ুন: ‘আর আলোচনা নয়’, মিসাইল ছুঁড়ে দক্ষিণ কোরিয়াকে বার্তা কিমের]

দমকল সূত্রে খবর, শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে রূপনগর থানার পেছনে চলন্তিকা মোড়ের ঝিলপাড় বসতিতে আগুন লাগে। সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে খবর পেয়ে দমকলের সাতটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নেভানোর চেষ্টা শুরু করে। ইদ উপলক্ষে অধিকাংশ ঘরের বাসিন্দারাই ঢাকার বাইরে রয়েছেন৷ তালাবদ্ধ ঘরগুলিতে দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ে। তবে মানুষ না থাকায় প্রাণহানি হয়নি৷ শেষ পর্যন্ত দমকলের ২৪টি ইউনিট কাজ করে র‍্যাব, পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের মদতে রাত  ১০.৩০ নাগাদ আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়। আগুনের খবর পেয়ে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম ও স্থানীয় সাংসদ ইলিয়াস মোল্লা ঘটনাস্থলে যান। তাঁরা ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনকে সহায়তার আশ্বাস দেন। মেয়র বলেন, আগুনে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের থাকা ও খাবারের ব্যবস্থা হচ্ছে। একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হবে।’    

এদিকে, কীভাবে আগুন লাগল, তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে দমকল৷ মনে করা হচ্ছে শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে৷ ঘিঞ্জি বসতিগুলিতে বেশিরভাগ বাড়িই অবৈধভাবে নির্মিত৷ ফলে অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা বলে সেখানে কিছুই ছিল না৷ তবে রাজধানী ঢাকায় এহেন ঘটনা প্রথম নয়৷ চলতি বছরের মার্চ মাসেই রাজধানীর বনানীর ১৭ নম্বর রোডের একটি বহুতলে ঘটা অগ্নিকাণ্ডে প্রাণ হারান ২৫ জন মানুষ৷ এই ঘটনার কয়কদিন আগেই চকবাজারের রাসায়নিক গুদামের ভয়াবহ আগুনে মৃত্যু হয় ৮১ জনের৷ 

[আরও পড়ুন: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাস! নোবেলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ কিশোরীর]

   

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং