BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বাংলাদেশে করোনার বলি আরও এক পুলিশকর্মী, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৭৭

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: May 2, 2020 3:59 pm|    Updated: May 2, 2020 3:59 pm

An Images

মৃত পুলিশকর্মী সুলতানুল আরেফিন

সুকুমার সরকার, ঢাকা: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারালেন বাংলাদেশের আরও এক পুলিশকর্মী। এই নিয়ে এখনও পর্যন্ত মোট পাঁচ পুলিশকর্মী কর্তব্যরত অবস্থায় বলি হলেন এই মারণ ভাইরাসের। গত কয়েকদিনে বাংলাদেশে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা কিছুটা কমলেও বেড়েছে মৃত্যু। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৫৫২ জনের শরীরে করোনার জীবাণু পাওয়া গিয়েছে। আর মারা গিয়েছে পাঁচজন। এর ফলে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ১৭৭ জন। তবে ২৪ ঘণ্টায় তিনজন সুস্থও হয়েছেন।

শনিবার দুপুর আড়াইটের সময় ঢাকার মহাখালী থেকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এই তথ্য জানান অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা। তিনি বলেন, ‘আমরা গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করেছি ৬ হাজার ১৯৩টি। যা গতকালের তুলনায় ৩.৯৪ শতাংশ বেশি। নমুনা পরীক্ষা করেছি ৫ হাজার ৮২৭টি। যা গত ২৪ ঘণ্টার চেয়ে ৪.৫৬ শতাংশ বেশি। এই সংগৃহীত নমুনা থেকে ৫৫২ জন করোনা আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। এর ফলে এখনও পর্যন্ত আট হাজার ৭৯০ জন করোনা রোগীকে শনাক্ত করা গিয়েছে।’

[আরও পড়ুন: এবার করোনায় আক্রান্ত বাংলাদেশের সাংসদ, ছড়াল চঞ্চল্য ]

এদিকে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবারই করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন এসআই সুলতানুল আরেফিন (৪৪)। তিনি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (DMP) পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্ট (POM) পশ্চিম বিভাগে কর্মরত ছিলেন। আজ সকালে ঢাকার রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। গত ৩০ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত এখানেই ভরতি হন তিনি। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থাতেই মারা যান।

পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (AIG) সোহেল রানা জানান, সুলতানুল আরেফিনের গ্রামের বাড়ি জামালপুর জেলায়। তিনি স্ত্রী, দুই কন্যা এবং এক ছেলে-সহ বহু আত্মীয় ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। পুলিশের ব্যবস্থাপনায় মরদেহ সুলতানুলের গ্রামের বাড়িতে পাঠানো হয়েছে। সেখানে জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে। এখনও পর্যন্ত সুলতানুল-সহ বাংলাদেশ পুলিশের পাঁচ সদস্য করোনা যুদ্ধে আত্মোৎসর্গ করলেন। তাঁরা হলেন, ডিএমপির কনস্টেবল জসিমউদ্দিন (৪০), এএসআই আবদুল খালেক (৩৬), ট্রাফিক বিভাগের কনস্টেবল আশেক মাহমুদ (৪৩) এবং পুলিশের বিশেষ শাখার এসআই নাজিরউদ্দিন (৫৫)।

[আরও পড়ুন: বাংলাদেশের টেকনাফে বানচাল ডাকাতির ছক, নিরাপত্তারক্ষীদের গুলিতে খতম দুই রোহিঙ্গা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement