৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৪ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ধূমপানের নেশায় মর্মান্তিক পরিণতি! সিগারেট ধরিয়ে ঘুম, দগ্ধ হয়ে মৃত্যু বাংলাদেশি যুবকের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: November 22, 2020 2:34 pm|    Updated: November 22, 2020 2:39 pm

An Images

সুকুমার সরকার, ঢাকা: ধূমপানের নেশায় মর্মান্তিক পরিণতি বাংলাদেশের (Bangladesh)  যুবকের। সিগারেট ধরিয়ে ঘুমিয়ে পড়েছিলেন নারায়ণগঞ্জের বছর পঁয়ত্রিশের এক যুবক। মশারি, বালিশে সেই আগুন ধরে যাওয়ায় দগ্ধ হয়ে মৃত্যু হল দীপায়ন সরকারের। জখম হয়ে হাসপাতালে ভরতি তাঁর স্ত্রী ও পাঁচ বছরের মেয়ে।

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লাপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি জানিয়েছেন, শুক্রবার রাতে ঘরেই ধূমপান করছিলেন দীপায়ন। তা না নিভিয়েই ঘুমিয়ে পড়েন। দীপায়নের সঙ্গে একইসঙ্গে ছিলেন তাঁর স্ত্রী পপি এবং পাঁচ বছরের মেয়ে রানি। এরপর জ্বলন্ত সিগারেটের (Cigarette) আগুন ধীরে ধীরে মশারিতে লেগে যায়, ছড়িয়ে পড়ে বালিশেও। আগুনের আঁচে তাঁদের ঘুম ভেঙে যায়। চিৎকার করে সাহায্য চান। মাঝরাতে চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা সাহায্যের জন্য ছুটে আসেন।

[আরও পড়ুন: ধর্মীয় কার্যকলাপের নামে মহিলাদের নিয়ে ফুর্তি! পীরের বিরুদ্ধে FIR প্রাক্তন স্ত্রীর]

কিন্তু ততক্ষণে দীপায়নের শরীর অনেকটাই দগ্ধ। তাঁরা তিনজনকেই তড়িঘড়ি উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নিয়ে যান। সেখানে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ার পর শনিবার রাতে মৃত্যু হয় দীপায়নের। দগ্ধ পপি সরকার এবং শিশুকন্যা রানিকে সুস্থ করে তোলার আপ্রাণ চেষ্টা করছেন চিকিৎসকরা, এমনই খবর হাসপাতাল সূত্রে।

[আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় তৎপরতা, ভ্যাকসিন আমদানিতে হাজার কোটি টাকার অর্ডার দিল বাংলাদেশ]

প্রতিবেশীদের ধারণা, দীপায়ন সেদিন রাতে শুয়েই সিগারেট ধরিয়েছিলেন। পরে ঘুম এসে যাওয়ায় তা না নিভিয়েই ঘুমিয়ে পড়েন। আর সেই ঘুমই চিরঘুমে পরিণত হল। স্রেফ ধূমপানের নেশা থেকে পঁয়ত্রিশ বছরের এক যুবকের এমন মর্মান্তিক পরিণতি হতে পারে, তা কেউ ভাবতেই পারছেন না। এখন অপেক্ষা, তাঁর স্ত্রী ও মেয়ে সুস্থ হয়ে ফিরে আসার।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement