১৩ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

বর্ধমান জুলজিক্যাল পার্কে ৯ দিনের শাবককে মেরে খেল মা চিতা! কর্তৃপক্ষের দাবিতে শোরগোল

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: September 23, 2020 1:09 pm|    Updated: September 23, 2020 3:23 pm

An Images

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: বর্ধমানের জুলজিক্যাল পার্ক ( Bardhaman Zoological Park) থেকে উধাও ন’দিনের চিতা বাঘের শাবক। পশুপ্রেমীদের ধারনা পাচারকারীরা পাচার করে থাকতে পারে প্রাণীটিকে। তবে পার্ক কর্তৃপক্ষের দাবি, মা চিতাটি খেয়ে নিয়েছে শাবককে। এই ঘটনায় শোরগোল পড়েছে গোটা জেলায়।

জানা গিয়েছে, সম্প্রতি চিতাবাঘটি একটি সন্তানের জন্ম দেয়। সেই সময়ই পার্ক কর্তৃপক্ষের কপালে ভাঁজ পড়েছিল, কারণ চিতাবাঘ সাধারণত একটি শাবক প্রসব করে না। ন’দিনের মাথায় বেপাত্তা হয়ে যায় চিতার ওই শাবকটিও। স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। শুরু হয় প্রাণীটির খোঁজ। হদিশ না মেলায় প্রাথমিকভাবে মনে করা হয় অসাধু ব্যবসায়ীরা প্রাণীটিকে বিক্রি করে দিয়েছে। এরপরই মা চিতাটির মল পরীক্ষা করা হয়। এক বনআধিকারিকের কথায়, মলে মিলেছে সরু হার, লোম। এতেই ধারণা যে, মা চিতাই সন্তানকে খেয়েছে। এবিষয়ে নিশ্চিত হতে হার ও লোম ডিএনএ পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে মোট করোনার বলি প্রায় সাড়ে ৪ হাজার, উদ্বেগ বাড়াচ্ছে কলকাতা-সহ এই পাঁচ জেলা]

কিন্তু কেন এ কাজ? বনাধিকারিক দেবাশিস শর্মার কথায়, এই মা চিতাটির বয়স ১৭ বছর। অর্থাৎ বৃদ্ধ হয়েছে সে। সন্তান সম্ভবত দূর্বল ছিল। সেই কারণেই জন্মের সঙ্গে সঙ্গেই হয়তো দুটি বা একটি সন্তান সে খেয়ে ফেলে। পরবর্তীতে ন’দিনের শাবককেও খায়। যদিও বিষয়টি এখনও নিশ্চিত নয়। উল্লেখ্য, এই ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসছে পশুপ্রেমীরা। চোরাশিকারির পাশাপাশি অভয়ারণ্য কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধেও ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন তাঁরা। তাঁদের কথায়, ওই জুলজিক্যাল পার্ক আদৌ প্রাণীদের রাখার উপযুক্তই নয়।

[আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশই সার, কোভিডের থাবায় আটকে ২০ কোটি টাকা, পুরুলিয়ায় থমকে উন্নয়ন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement