২৮ আশ্বিন  ১৪২৬  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর: কারখানায় শ্রমিকের মৃত্যু ঘিরে উত্তপ্ত ইস্পাত নগরী দুর্গাপুরের সগড়ভাঙা। মৃত ব্যক্তির নাম তপন মল্লিক। মৃতের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানিয়ে রবিবার সকালে কারখানার বাইরে বিক্ষোভ দেখান শ্রমিকরা। দীর্ঘক্ষণ পর কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে ওঠে বিক্ষোভ। 

[আরও পড়ুন: মাও হামলা থেকে সুরক্ষা দিতে সিসিটিভির নজরদারি ঝাড়খণ্ড সীমানার হাট-বাজারে]

সূত্রের খবর, তপন মল্লিক নামে রড কারখানায় কর্মরত ওই ব্যক্তির পায়ে সমস্যা ছিল। ফলে হাঁটাচলা করতে তাঁর একটু অসুবিধাও হতো। রবিবার সকালে কারখানা চত্বরের মধ্যেই একটি রাস্তা পার হচ্ছিলেন তপনবাবু। অভিযোগ, সেই সময় উলটোদিক থেকে আসা কারখানারই একটি গাড়ি ধাক্কা দেয় তাঁকে। তপনবাবু রাস্তায় লুটিয়ে পড়লে তাঁর পায়ের উপর দিয়ে চলে যায়  গাড়িটি। কারখানার অন্যান্য শ্রমিকরা রক্তাক্ত অবস্থায় তপনবাবুকে ছটফট করতে দেখে তড়িঘড়ি তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই  চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

তপনবাবুর মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন কারখানার শ্রমিকরা। নিরাপত্তার প্রশ্ন তুলে কারখানার বাইরে মৃতের দেহ রেখে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। মৃতের পরিবারকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ ও একজনের চাকরির দাবিতে সরব হন শ্রমিকরা। বিক্ষোভের জেরে এদিনের মতো ব্যাহত হয় কারখানার উৎপাদন। বেশ কিছুক্ষণ পর কারখানা কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে ওঠে বিক্ষোভ।    

[আরও পড়ুন: মেয়রের নামে ভুয়ো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট, উসকানিমূলক পোস্ট ছড়িয়ে ধৃত অভিযুক্ত]

প্রত্যক্ষদর্শীর কথায়, ঘাতক গাড়ির চালক মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। অভিযোগ, সেই কারণেই আচমকা তপনবাবু সামনে চলে গেলে নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারেননি তিনি। যদিও দুর্ঘটনার বিষয়টি কার্যত অস্বীকার করেছে কারখানা কর্তৃপক্ষ। তবে শ্রমিকদের দাবি না মানলে সোমবার থেকে কারখানার স্বাভাবিক কাজ হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় আছে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং