২৮ কার্তিক  ১৪২৬  শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: জমি বিবাদের জেরে যৌনাঙ্গ কেটে এক ব্যক্তিকে খুনের অভিযোগ উঠল প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে। রবিবার গভীর রাতে চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার জীবনতলা এলাকায়। খবর পেয়ে সোমবার সকালে জীবনতলা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়। ইতিমধ্যেই অভিযুক্তদের হদিশ পেতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: পণের টাকা দিতে পারেনি বাপের বাড়ি, গঞ্জনা সহ্য করতে না পেরে আত্মঘাতী বধূ]

জানা গিয়েছে, অন্যান্য দিনের মতোই রবিবার রাতেও খাওয়াদাওয়া সেরে ঘুমোতে যান জীবনতলা থানার হোমরা পলতা এলাকার বাসিন্দা বনমালী হালদার। কিছুক্ষণ পর একজন তাঁকে ডাকেন। বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান বনমালীবাবু। পরিবার সূত্রে খবর, সারারাত বাড়ি ফেরেনি তিনি। পরিবারের সদস্যরা চেষ্টা করেও কেউ তাঁর খোঁজ পাননি।

এরপর সোমবার সকালে বাড়ির উঠোন থেকে উদ্ধার হয় তাঁর রক্তাক্ত দেহ। দেহের পাশ থেকে মেলে একটি ব্লেড। এরপরই খবর দেওয়া হয় জীবনতলা থানায়। ইতিমধ্যেই পুলিশের তরফে দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, গলা ও যৌনাঙ্গ কেটে খুন করা হয়েছে ওই ব্যক্তিকে। 

স্থানীয় সূত্রে খবর, দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে প্রতিবেশীদের সঙ্গে অশান্তি চলছিল বনমালীবাবুর। অভিযোগ, সেই বচসার জেরেই প্রতিবেশীরাই তাঁকে খুন করেছে৷ যদিও এবিষয়ে এখনও নিশ্চিত হতে পারেননি তদন্তকারীরা। অভিযোগের সত্যতা যাচাই করতে ইতিমধ্যে মৃতের স্ত্রী, পরিবারের অন্যান্য সদস্য ও প্রতিবেশীদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ। পাশাপাশি, পরিবারিক কোনও সমস্যা ছিল কি না, সে বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন তদন্তকারীরা। রবিবার রাতে কে ডেকেছিলেন বনমালীবাবুকে? এখনও তাঁর সন্ধান চালাচ্ছেন তদন্তকারীরা। ওই ব্যক্তির সন্ধান পেলে রহস্যের জট অনেকটাই খুলবে বলে মনে করছে জীবনতলা থানার পুলিশ। 

[আরও পড়ুন:বিনা অনুমতিতে হিন্দু সংহতির কর্মসূচিতে ছবি ও নাম ব্যবহার, ক্ষুব্ধ বিজেপি নেতা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং