BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

বসিরহাটে সাপে কাটার পরে দম্পতিকে ঝাড়ফুঁক, ওঝার বাড়িতেই মৃত্যু প্রৌঢ়ের

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 16, 2020 1:41 pm|    Updated: July 16, 2020 1:45 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এবার কুসংস্কারের বলি হলেন বসিরহাটের (Basirhat) বাসিন্দা এক প্রৌঢ়। সাপে কাটার পর হাসপাতালের পরিবর্তে ওঝার বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল ওই প্রৌঢ় ও তাঁর স্ত্রীকে। সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর। এখন হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন তাঁর স্ত্রী। 

ঘটনার সূত্রপাত মঙ্গলবার। জানা গিয়েছে, অন্যান্যদিনের মতোই ওই দিনও মশারি টাঙিয়ে ঘুমিয়েছিলেন মাটিয়া থানা এলাকার বাসিন্দা সফিকুল দফাদার ও তাঁর স্ত্রী খাদিজা বিবি। সেই সময় কোনওভাবে মশারির ভিতর ঢুকে পড়েছিল একটা সাপ। আচমকা ঘুম ভাঙতেই সফিকুল সাপটিকে দেখতে পান। এরপরই শুরু করেন আর্তনাদ। পাশের ঘর থেকে ছুটে আসেন পরিবারের অন্যান্যরা। তখনই আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়েন খাদিজা বিবি। সাপে কামড়েছে অনুমান করে তড়িঘড়ি তাঁকে ওঝার কাছে নিয়ে যায় পরিবারের সদস্যরা। সঙ্গে যান সফিকুলও। কিছুক্ষণ পর থেকেই অসুস্থ বোধ করতে শুরু করেন সফিকুলও। এরপর সাপে কামড়েছে অনুমান করে তাঁকেও ঝাড়ফুঁক করানো হয়। বুধবার দুপুর পর্যন্ত ওঝা ঝাড়ফুঁক চালিয়ে গেলে শেষরক্ষা হয়নি। ওঝার বাড়িতেই মৃত্যু হয় সফিকুলের।

[আরও পড়ুন: একই পরীক্ষাকেন্দ্র, মাধ্যমিকে প্রাপ্ত নম্বরও একই! যমজ মেয়ের কীর্তিতে উচ্ছ্বসিত বাবা-মা]

ওই প্রৌঢ়ের মৃত্যুর পর টনক নড়ে পরিবারের সদস্যদের। এরপরই হাসপাতালে ভরতি করা হয় খাদিজা বিবিকে। বর্তমানে সেখানেই রয়েছেন তিনি। জানা গিয়েছে, ময়নাতদন্ত শেষে বৃহস্পতিবার বিকেলে মাটিয়ায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে সফিকুলের। বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়ে এহেন ঘটনায় অত্যন্ত ক্ষুব্ধ বিজ্ঞানমঞ্চের সদস্যরা। তাঁদের কথায়, “কুসংস্কারের বশবর্তী হয়ে লাগাতার এধরণের ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। মানুষকে অনেক বেশি সচেতন হতে হবে।”

[আরও পড়ুন: থানায় বসে মাংস-ভাতে ভূরিভোজ ধৃত বিজেপি কর্মীদের, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বদলি কোতোয়ালির আইসি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement