BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আতঙ্ক, জাপানের জাহাজে আক্রান্তদের সঙ্গে আটকে বাংলার যুবক

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 7, 2020 2:59 pm|    Updated: March 12, 2020 1:09 pm

An Images

শংকরকুমার রায়, রায়গঞ্জ: করোনা আতঙ্কে কাঁটা গোটা বিশ্ব। মহামারির আকার নিয়েছে এই মারণ ভাইরাস। এমন পরিস্থিতিতে ৬২ জন করোনা আক্রান্তের মাঝে সুদূর জাপানে জাহাজে আটকে উত্তর দিনাজপুরের বাসিন্দা বিনয়কুমার সরকার। ছেলের চিন্তায় রাতের ঘুম উড়েছে বাবা-মার। ছেলেকে দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনার আরজি জানিয়ে প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছেন তাঁর পরিবার।তাঁকে দেশে ফিরিয়ে আনতে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী(নারী ও সমাজকল্যাণ) দেবশ্রী চৌধুরী।

উত্তর দিনাজপুরের গোয়ালিপুকুর-২ ব্লকের মজলিসপুরের হাতিপার বাসিন্দা বিনয়কুমার সরকার। প্রিন্সেস ডায়মন্ড জাহাজে কর্মরত তিনি।বছর তিনেক আগে গোয়ায় পড়াশোনা শেষ করে আমেরিকায় পাড়ি দিয়েছিলেন। এখন কর্মসূত্রে জাপানে থাকেন বিনয়। জাহাজে হংকং থেকে টোকিও ফিরছিলেন তিনি। এরমধ্যেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়তেই ইয়োকোহামায় জাহাজটি আটকে দেওয়া হয়। বিনয় জানিয়েছেন, “জাহাজে ক্রু ও যাত্রী সমেত মোট ১৬০ জন রয়েছেন। তার মধ্যে ৬২জন ইতিমধ্যে করোনা আক্রান্ত।” আপাতত এখনও সুস্থ রয়েছেন বিনয়। প্রশাসনের কাছে দ্রুত দেশে ফেরাতে আরজি জানিয়েছেন তিনি। এনিয়ে ফেসবুকেও একটি পোস্ট করেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ছেলের দ্বিতীয় স্ত্রীকে মানতে নারাজ পরিবার, ধরনায় বসেই মুশকিল আসান নতুন বউয়ের]

এমন পরিস্থিতিতে ছেলের চিন্তায় কার্যত ভেঙে পড়েছেন তাঁর মা চণ্ডি সরকার। ছেলে কবে বাড়ি ফিরবে, তার অপেক্ষায় বসে রয়েছেন তিনি। প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছে বিনয়ের পরিবার। এ প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরি জানিয়েছেন, “আজ সকালেই খবরটা শুনেছি। বিদেশমন্ত্রীকে বিষয়টা জানাচ্ছি।” বিনয়কুমারকে দ্রুত দেশে ফেরাতে উপযুক্ত কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন রাজ্যের শ্রম দফতরের প্রতিমন্ত্রী গোলাম রব্বানিও। 

[আরও পড়ুন: মহিলাদের সাহস জোগাবে ‘অভয়া’, নয়া অ্যাপ আনল আসানসোল-দুর্গাপুর কমিশনারেট]

এদিকে নয়া রিপোর্ট বলেছে, করোনা ভাইরাসের হামলায় চিনে মৃত্যু হয়েছে ২৫ হাজার মানুষের। সংক্রমণ ছড়িয়েছে আরও লক্ষাধিক মানুষের মধ্যে। ‘ভুল করে’ এমন চাঞ্চল্যকর তথ্যই প্রকাশ করে ফেলল চিনা বহুজাতিক সংস্থা ‘Tencent’। 

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement