BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৭ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

মহিলাদের সাহস জোগাবে ‘অভয়া’, নয়া অ্যাপ আনল আসানসোল-দুর্গাপুর কমিশনারেট

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: February 7, 2020 12:57 pm|    Updated: February 7, 2020 12:57 pm

An Images

চন্দ্রশেখর চট্টোপাধ্যায়, আসানসোল: উথালপাতাল করা সময়ে যখন নারীর নিরাপত্তা নিয়ে গোটা দেশ চিন্তিত, ঠিক সেই সময়ে নতুন এক চিন্তাধারা নিয়ে হাজির আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেট। নারী নিরাপত্তার দিকটিতে নজর রেখে এবার নতুন অ্যাপটি নিয়ে এলেন পুলিশকর্তারা। অ্যাপের নাম দেওয়া হয়েছে ‘অভয়া’। এই ‘অভয়া’ অ্যাপ শহরের নারীর অতন্দ্র প্রহরীর কাজ করবে। সবরকমের বিপদে, সমস্যার সমাধানে ও পুলিশের সাহায্য নেওয়ার জন্য বৃহস্পতিবার থেকেই চালু হল বিশেষ অ্যাপ ‘অভয়া’। এই অ্যাপ ছাড়াও এদিন মহিলাদের জন্য একটি হেল্পলাইন নম্বর ও ই-মেইল চালু করা হল পুলিশের পক্ষ থেকে। অ্যাপটি স্মার্টফোনে ডাউনলোড করে নিলেই, তার সুবিধা পাওয়া যাবে।

আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারেটের অফিসে পুলিশ কমিশনার সুকেশ জৈন সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে মহিলাদের জন্য এই অ্যাপ চালু-সহ একাধিক সুবিধার কথা জানান। এই অ্যাপের সাইজ খুবই ছোট, মাত্র ৪.৮ এমবি। স্মার্টফোনে গিয়ে গুগল প্লে-স্টোর থেকে খুব সহজেই ছোট্ট এই অ্যাপটি নামিয়ে ফেলতে পারবেন সকলে। এরপর ওটিপির সাহায্যে নিজের নাম নথিভুক্ত করিয়ে ব্যবহার করা যাবে এই অ্যাপ।

[আরও পড়ুন: ভুয়ো খবর রুখতে নয়া উদ্যোগ, প্রতিটি পেজে নজরদারি চালাবে টুইটার]

পুলিশ কমিশনার বলেন, এই অ্যাপে রয়েছে একটি লাল রঙের প্যানিক বাটন। সেই বাটন তিনবার টিপলেই সেটি সবুজ হয়ে যাবে। সঙ্গে সঙ্গে সেই খবর পৌঁছে যাবে কাছাকাছি থানা, আসানসোল-দুর্গাপুর পুলিশের কন্ট্রোল রুমে ও এসিপি পদমর্যাদা আধিকারিকের কাছে থাকা ফোনে। তাতে যে বা যিনি সেটি ব্যবহার করেছেন, তাঁর লোকেশন পুলিশ জানতে পারবে। পাশাপাশি তাঁর কাছেও একটি বার্তা পাঠিয়ে দেওয়া হবে। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ ওই মহিলাকে সাহায্য করার জন্য সঙ্গে সঙ্গে পদক্ষেপ নেবে। শিল্পাঞ্চলের রাস্তায় কোনও নারী বিপদে পড়লে ওই অ্যাপের প্যানিক বাটনে ক্লিক করলে এক লহমাতেই কাজ হয়ে যাবে।

পুলিশ কমিশনার বলেন, আগামী দিনে নারীসুরক্ষার ক্ষেত্রে অন্যতম ভূমিকা নিতে চলেছে এই অ্যাপ। পুলিশ কমিশনারেটের আওতায় থাকা বুদবুদ থানা এলাকা থেকে চিত্তরঞ্জন পর্যন্ত পুলিশের এই অ্যাপটি কাজ করবে। এদিন একটি হেল্পলাইন চালু করার কথাও পুলিশ কমিশনার জানান। মহিলাদের জন্য হওয়া এই হেল্পলাইনে কেউ ফোন করলে সঙ্গে সঙ্গে তা পুলিশের কন্ট্রোল রুমে রেকর্ড হয়ে যাবে। তা থেকে পুলিশ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে। [email protected] Com নামে একটি মেল চালু করা হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে। এই মেলের মাধ্যমেও মহিলারা আলাদা করে অভিযোগ জানাতে পারবেন বলে তিনি জানান।

পুলিশ কমিশনার বলেন, ইতিমধ্যেই প্রতিটি থানাতেই মহিলা পুলিশকর্মী দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি আসানসোল ও দুর্গাপুরে দুটি মহিলা থানা আছে। এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে ছিলেন এডিসিপি (সেন্ট্রাল) সায়ক দাস , এডিসিপি (ট্রাফিক) রাহুল দেব ও এসিপি (সেন্ট্রাল) সৌম্যদীপ ভট্টাচার্য্য।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement