২১ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৬ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

বাথরুমে ঢুকে নাবালিকার ‘শ্লীলতাহানি’, মারধরের পর অভিযুক্তের চুল কেটে নিল স্থানীয়রা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: July 7, 2020 11:37 am|    Updated: July 7, 2020 11:51 am

An Images

ছবিটি প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাড়ি ফাঁকা থাকার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে নাবালিকার শ্লীলতাহানির
অভিযোগ উঠল প্রতিবেশী প্রৌঢ়ের বিরুদ্ধে। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই অভিযুক্তকে বিদ্যুতের খুঁটিতে বেঁধে বেধড়ক মারধর করেন স্থানীয়রা। সোমবার সন্ধেয় চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে হুগলিতে (Hoogly)।

জানা গিয়েছে, হুগলির পাণ্ডুয়ার বাসিন্দা বছর ১৩ -এর ওই নাবালিকা। সোমবার সন্ধেয় বাড়িতে একাই
ছিল সে। অভিযোগ, সেই সময় চুপিসারে নাবালিকার ঘরে ঢোকে প্রতিবেশী প্রৌঢ় কেষ্ট কর্মকার। বেশকিছুক্ষণ কিশোরীর সঙ্গে কথা বলে সে। এরপর ওই নাবালিকা বাথরুমে যেতেই তার পিছু নেয়। শৌচাগারে ঢুকে কিশোরীর শ্লীলতাহানি করে প্রৌঢ়। নিগৃহীতার আর্তনাদে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে ধরে ফেলে অভিযুক্তকে।

[আরও পড়ুন: আমফানের ত্রাণ পাইয়ে দেওয়ার নামে গৃহবধূকে ‘ধর্ষণ’, কাঠগড়ায় তৃণমূল নেতা]

এরপরই তাকে বিদ্যুতের খুঁটিতে বেঁধে বেধড়ক মারধর করা হয়। কেটে দেওয়া হয় মাথার চুল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পাণ্ডুয়া থানার পুলিশ। তাঁদের সামনেও চলে চড়-থাপ্পড়। এরপর সেখান থেকেই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। শুরু হয়েছে তদন্ত। ধৃত কেষ্ট কর্মকারের কঠোরতম শাস্তির দাবিতে সরব প্রতিবেশীরা।

[আরও পড়ুন: লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ, কলকাতা-সহ রাজ্যের একাধিক জেলায় ফের কড়া হচ্ছে লকডাউন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement