BREAKING NEWS

১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

অস্ত্র নিয়ে দলীয় মিছিলে তৃণমূল নেতা, ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই তুঙ্গে বিতর্ক

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: September 27, 2020 1:21 pm|    Updated: September 27, 2020 1:24 pm

An Images

ধীমান রায়, কাটোয়া: অস্ত্র হাতে প্রকাশ্যে মিছিল করে বিতর্কে পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামের (Aushgram) তৃণমূল নেতা। লাইসেন্সপ্রাপ্ত আগ্নেয়াস্ত্র কোমরে গুঁজে দলীয় কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন আউশগ্রাম ২ নং ব্লক তৃণমূল (TMC) কার্যকরী সভাপতি আবদুল লালন। তাঁর এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পর এলাকায় চাঞ্চল্য। শুরু হয়েছে বিতর্কও।

অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন নিজের নিরাপত্তার জন্য লাইসেন্সপ্রাপ্ত আগ্নেয়াস্ত্র কারও থাকতেই পারে। তাই বলে দিনদুপুরে দলীয় কর্মীদের সঙ্গে মিছিলে অংশ নেওয়ার সময় ওইভাবে প্রকাশ্যে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ঘোরার যৌক্তিকতা কতটা? আবদুল লালনের অবশ্য বক্তব্য, “আমার লাইসেন্সপ্রাপ্ত আগ্নেয়াস্ত্র আছে। তবে আমি দলীয় মিছিলে অংশ নেওয়ার সময় আগ্নেয়াস্ত্র কাছে ছিল না। ওটা অন্য সময়ে তোলা ছবি। সেই ছবি কেউ বা কারা ছড়িয়ে অপপ্রচার করছে আমাকে ও দলকে বদনাম করার জন্য।”

[আরও পড়ুন: শিকেয় দূরত্ববিধি, ভাঙড়ে তৃণমূলের সভায় চটুল গানে উদ্দাম নাচ কর্মীদের!]

আউশগ্রামের গেরাই গ্রামের বাসিন্দা আবদুল লালন প্রতিষ্ঠিত এবং সম্পন্ন ব্যবসায়ী বলে পরিচিত। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, আউশগ্রাম এলাকায় গত দু’দিন ধরে অনেকের মোবাইলে ঘুরছে আবদুল লালনের একটি ছবি। তাতে দেখা যাচ্ছে সাদা প্যান্ট, সাদা শার্ট এবং মাথায় সাদা ফেট্টি জড়িয়ে ফোন কানে দিয়ে কারও সঙ্গে কথা বলতে ব্যস্ত তিনি। তাঁর আশপাশে দাঁড়িয়ে বেশ কয়েকজন, পিছনে রয়েছে একটি মারুতি ভ্যান। মারুতি ভ্যানের সামনে লাগানো ব্যানারের লেখায় কিছুটা অংশ ছবিতে দেখা যাচ্ছে। তা দেখে বোঝা যায়, কেন্দ্রের নয়া কৃষি বিলের প্রতিবাদে দলীয় কোনও কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার সময়েই এই ছবি তোলা হয়েছে। অর্থাৎ তা একেবারেই সাম্প্রতিক।

[আরও পড়ুন: ফের ভাঙন পদ্মশিবিরে, এবার বিজেপি পরিচালিত পুরুলিয়ার জয়পুর পঞ্চায়েত তৃণমূলের দখলে]

গত শুক্রবার আউশগ্রাম ২ ব্লকের দেবশালা অঞ্চলে কৃষি বিলের প্রতিবাদে মিছিল করে তৃণমূল। সেই মিছিলে অংশ নেওয়ার সময়েই এই ছবি তোলা হয়েছিল বলে একাংশের দাবি। যদিও আউশগ্রাম ২ ব্লক তৃণমূল সভাপতি রামকৃষ্ণ ঘোষ বলেন, “দেবশালার মিছিলে আমিও ছিলাম। কিন্তু ওই সময়ের ছবি ওটা নয়। অন্য কোনও সময়ে ফটোশুটের ছবি এভাবে দেখিয়ে আমাদের দলকে ও লালনকে বদনাম করার চেষ্টা করা হচ্ছে।” আউশগ্রামের বিধায়ক অভেদানন্দ থান্ডার এ নিয়ে দায় উড়িয়ে জানান, “বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখছি।” সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল আবদুল লালনের অস্ত্র নিয়ে ঘোরার ছবি এখনকার নাকি আগের, এ নিয়ে তর্ক, প্রমাণ থাকতেই পারে। আপাতত ভাইরাল হওয়া ছবি যে তৃণমূলকে বেশ অস্বস্তিতেই ফেলল, তা স্পষ্ট।

ছবি: জয়ন্ত দাস।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement