BREAKING NEWS

১৯  মাঘ  ১৪২৯  শনিবার ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

ভাঙড়ে প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, অঞ্চল সভাপতির বাড়ি লক্ষ্য করে চলল ১২ রাউন্ড গুলি!

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: December 7, 2022 11:05 am|    Updated: December 7, 2022 11:05 am

A TMC leader accused of firing at a Trinamool leader's house | Sangbad Pratidin

দেবব্রত মণ্ডল, বারুইপুর: রাতভর তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতির বাড়িতে গুলিবৃষ্টি-বোমাবাজি। ঘটনাকে কেন্দ্র করে শোরগোল দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড় এলাকায়। অভিযোগের তির দলেরই এক নেতার দিকে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে অভিযুক্তের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন আতঙ্কিত তৃণমূল (TMC) নেতা।

ভাঙড়ের বাসিন্দা ফজলে করিম। তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি তিনি। অভিযোগ, মঙ্গলবার রাতে তাঁর বাড়ি লক্ষ্য করে কমপক্ষে ১২ রাউন্ড গুলি চালানো হয়। কোনওটা লাগে বাড়ির দেওয়ালে। কোনওটা আবার জানলা দিয়ে গিয়ে লাগে বিছানায়। সেই সঙ্গে চলে বোমাবাজি। তবে কোনও ক্রমে প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন ফজলে করিম। রাতেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। ফজলে করিমের অভিযোগ, গোটা ঘটনার নেপথ্যে রয়েছেন তৃণমূল নেতা কাইজার। এদিন কান্নায় ভেঙে পড়ে ফজলে করিম বলেন, “কিছুদিন আগে আমি কাইজারের সঙ্গে এসএফআইয়ের যোগের প্রমাণ দিয়েছিলাম। দলের কাছে বিচারও চেয়েছিলাম। সেই কারণেই কাইজারের দুষ্কৃতীরার হামলা চালিয়েছে আমার বাড়িতে।” এর আগেও দুবার কাইজার তাঁর বাড়িতে হামলা চালায় বলে অভিযোগ ফজলে করিমের।

[আরও পড়ুন: বিজেপির চক্রান্তে মিথ্যে মামলার ফাঁসে তৃণমূল নেতা-কর্মীরা! লিগ্যাল ডেস্ক চালুর সিদ্ধান্ত অভিষেকের]

এদিন ফজলে করিম বলেন, “আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে কাইজারের বিচার চাই।” এ বিষয়ে তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ বলেন, “যার বাড়িতে গুলি চলেছে, তিনি আতঙ্কিত হবেন এটাই স্বাভাবিক। যে অভিযোগ উঠছে সেটা ঠিক কি না, প্রথমে তা দেখতে হবে। যদি সত্যি হয়, সেক্ষেত্রে পুলিশ দল-মত না দেখে পদক্ষেপ করবে।” ঘটনা প্রসঙ্গে সিপিএম নেতা শমীক লাহিড়ি বলেন, “তৃণমূল নেতা সব থেকে বেশি খুন হয়েছেন ক্ষতি গ্রস্ত হয়েছেন তৃণমূলের হাতেই।” তাঁর দাবি, শীর্ষ নেতারা শান্তিপূর্ণ ভোটের কথা বললেও আদতে তেমনটা হবে না।

[আরও পড়ুন: গভীর রাতে ২ যুবককে গুলি করে খুন! অভিযুক্তের বাড়িতে আগুন উত্তেজিত জনতার, উত্তপ্ত বারুইপুর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে