১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৩০ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দিলীপের ডুয়ার্স সফরের মাঝেই দলে ভাঙন, ১৫০ বিজেপি কর্মীর তৃণমূলে যোগদান

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 14, 2020 6:44 pm|    Updated: August 14, 2020 11:12 pm

Almost 150 BJP workers join TMC in Dooars in presence of Dilip Ghosh

অরূপ বসাক, মালবাজার: দিলীপ ঘোষের (Dilip Ghosh) প্রায় সামনে দিয়েই দলে দলে বিজেপি কর্মীরা দল ছেড়ে যোগ দিলেন তৃণমূলে। এই মুহূর্তে ডুয়ার্সে রয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। কিন্তু তাঁর সফরের মাঝেই অন্তত ১৫০ জন বিজেপি এবং সিপিএম কর্মী যোগ দিলেন শাসক শিবিরে। রাজ্য সভাপতির উপস্থিতিতে ডুয়ার্সের গেরুয়া শিবিরে এই ভাঙনে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

মালবাজার মহকুমার তেশিমলা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় বিজেপি এবং সিপিএমের প্রায় ১৫০ জন কর্মীর হাতে দলীয় পতাকা তুলে দিলেন তৃণমুল ব্লক সভাপতি তমাল ঘোষ এবং আমিরুল হক। উপস্থিত ছিলেন তেশিমলা গ্রাম পঞ্চায়েত তৃণমূল সভপতি আমিরুল হক, তেশিমলা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মিনারা পারভিন, বিশিষ্ট তৃনমুল নেতা শরিফুল হক, আবদুল রেজ্জাক, বুলবুল আহমেদ, মাল ব্লক যুব তৃণমূল কার্যকারি সভাপতি রাব্বু প্রধান, তেশিমলা অঞ্চল যুব সভাপতি আরমান আরশাদ-সহ প্রায় সকলেই।

[আরও পড়ুন: ‘অনুব্রত মাফিয়া, বোমের রাজনীতি করেন’, বর্ধমান থেকে তোপ রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের]

অন্যদিকে, জলপাইগুড়ি জেলার মাল বিধানসভার বিজেপির পশ্চিম মণ্ডল কমিটিতে ৮ বছর ধরে সাধারণ সম্পাদক দায়িত্ব সামলাচ্ছিলেন জাকিরুল আলম। তিনিও এদিন দল ছেড়ে যোগ দিলেন তৃণমূলের। সঙ্গে আরও ২০০ জন সহকর্মী। তৃণমূলের ক্রান্তি সাংগঠনিক ব্লক পার্টি অফিসে তাঁরা যোগদান করলেন বলে তৃণমুল নেতৃত্বের দাবি। দলীয় পতাকা হাতে তুলে দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস পরিবারে তাঁদের স্বাগত জানালেন ক্রান্তি সাংগঠনিক ব্লকের সভাপতি মেহেবুব আলম। বিজেপির পশ্চিম মণ্ডল কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাকিরুল আলম বলেন, ”বিজেপিতে এতদিন কাজ করেছি। কিন্তু আমার কাছে যেটা মনে হয়েছে, মানুষের পাশে থাকা বা মানুষের সেবা যথাযথভাবে করতে হলে তৃণমূল কংগ্রেসে থেকেই তা সম্ভব হবে। তাই আমি এবং আমার লোকজনকে নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস এ যোগদান করলাম।”

[আরও পড়ুন: স্কুল ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে একজোট, যৌথ মিছিলে বিজেপি-তৃণমূল-সিপিএম-কংগ্রেস]

এব্যাপারে মাল ব্লকের তৃণমুল সভাপতি তমাল ঘোষের বক্তব্য, ”বর্তমানে বিজেপির রাজ্য সভাপতি লাটাগুড়িতেই রয়েছে। আর তার মধ্যেই বিজেপি কর্মীরা দলে দলে তৃণমূল নাম লেখাচ্ছেন। তার মানে বিজেপির রাজ্য সভাপতি উপর বিজেপি কর্মীদের কোনও আস্থা নেই। তাঁকে গুরুত্ব দেয় না কেউ। এতেই বোঝা যাচ্ছে বিজেপির মধ্যে গোষ্ঠীকোন্দল বেড়েছে। এভাবেই প্রতিদিন বিজেপি কর্মীরা এসে তৃণমূলে যোগদান করবেন।”

আবার উলটপুরাণও আছে। গজলডোবা এলাকায় এদিন তৃণমূল ছেড়ে প্রায় ১০০ জন সমর্থক বিজেপিতে যোগদান করলেন। মাল ব্লকের কুমলাই গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় কিছুদিন আগে যে ১৫টি পরিবার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করেছিল, এদিন সেই ১৫ টি পরিবার আবার বিজেপিতে ফিরল বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের। বিজেপির মাল উত্তর মণ্ডলের যুব সভাপতি কৌশিক দত্তের পালটা বক্তব্য, ”প্রতিদিন এই ভাবেই বিজেপিতে যোগদানের সংখ্যা বাড়ছে। যত বিধানসভা ভোট এগিয়ে আসবে, ততই দলবদলের হিড়িক লেগেই থাকবে ডুয়ার্সে।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে