BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মহিলা কর্মীকে অশালীন আক্রমণ সোশ্যাল মিডিয়ায়, অভিযুক্ত বিজেপি জেলা সভাপতি

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 14, 2020 8:38 pm|    Updated: March 14, 2020 8:38 pm

An Images

জ্যোতি চক্রবর্তী, বনগাঁ: সোশ্যাল মিডিয়ায় কুরুচিকর মন্তব্য পোস্টের অভিযোগ বিজেপির এক জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে। অভিযোগ জানান বিজেপিরই এক মহিলার কর্মী দীপালী দেব। অভিযুক্ত বিজেপি নেতার নাম শংকর চট্টোপাধ্যায়৷ তিনি বিজেপির বারাসতের সাংগঠনিক জেলার সভাপতি পদে আসীন রয়েছেন বলে জানা যায়। বিজেপি জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে গোপালনগর থানার লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলা বিজেপি কর্মী৷

সূত্রের খবর, গোপালনগরের আকাইপুরের বাসিন্দা দীপালী দেব, দীর্ঘদিন ধরে বিজেপি সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। এলাকার সমস্ত মহিলা ও পুরুষ কর্মীদের নিয়ে তাদের একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ রয়েছে। সেই গ্রুপেই রয়েছেন বারাসত সাংগঠনিক জেলার সভাপতি শংকর চট্টোপাধ্যায়। দিন কয়েক আগে সেই গ্রুপে একটি পোস্টকে কেন্দ্র করে বিতর্ক তৈরি হয় শংকর চট্টোপাধ্যায় ও দীপালী দেবের মধ্যে। সেই মন্তব্যের প্রিন্ট আউট নিয়েই থানায় অভিযোগ দায়ের করেন দিপালী দেব৷

তিনি বলেন, “বিজেপি কর্মীদের একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ রয়েছে। সেই গ্রুপেই স্থানীয় কর্মীদের কাজের নানা নির্দেশ দিয়ে থাকেন সভাপতি। তবে কয়েকদিন আগে সেই গ্রুপেই মহিলাদের উদ্দেশ্যে কুরুচিকর মন্তব্য করেছেন শংকর চট্টোপাধ্যায়।” বারাসাত সাংগঠনিক জেলার বিজেপির সহ-সভাপতি দেবদাস মণ্ডল বলেন, “অভিযোগকারী মহিলা বিজেপি কিনা তা নিয়ে আমাদের সন্দেহ আছে। শাসকদল চক্রান্ত করে এসব করাচ্ছে।” তবে মহিলার অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নেমেছে গোপালনগর থানার পুলিশ। তদন্তে নেমে অভিযোগকারিণী-সহ বিজেপির বাকি কর্মীদের সঙ্গেও কথা বলেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: ভোটার তালিকায় বদলে গেল কাউন্সিলর ও তাঁর স্ত্রীর নাম! প্রশ্নের মুখে কমিশনের ভূমিকা]

এই বিষয়ে বারাসতের সাংগঠনিক জেলার সভাপতি শংকর চট্টোপাধ্যায়কে ফোন করা হলে তিনি কোনওরকম প্রতিক্রিয়া দেননি। সর্বসমক্ষে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে মহিলার সম্পর্কে এই ধরনের মন্তব্য করায় যথেষ্ট অপমানিত হন অভিযোগকারিণী। তবে, এই ধরনের পোস্ট নতুন নয় বিজেপির নেতারা কুরুচিকর মন্তব্যে ক্রমে সিদ্ধহস্ত হয়ে ওঠার চেষ্টায় রয়েছেন। ছোট থেকে বড় সব নেতারাই প্রচারের আলোয় আসতে এই পথকেই বেছে নিচ্ছেন।

[আরও পড়ুন: ‘৩৩ কোটি দেবদেবীর দেশ ভারত, করোনা কিছু করতে পারবে না’, নয়া তত্ত্ব কৈলাসের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement