Advertisement
Advertisement
Arjun Singh

‘নিরাপত্তা নিতে লজ্জা হয়’, বারাকপুরে শুটআউট আমজনতার জন্য চিন্তিত অর্জুন সিং

এই ঘটনায় গ্রেপ্তার মোট ২ জন, অধরা আরও দুই।

Arjun Singh feels 'ashameed' to take his own security how Barrackpore shootout took place | Sangbad Pratidin
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:May 26, 2023 2:20 pm
  • Updated:May 26, 2023 3:26 pm

অর্ণব দাস, বারাসত: বারাকপুরে সোনার দোকানে শুটআউট (Shootout), মুহূর্তের মধ্যে মালিকের ছেলে খুনের ঘটনা এই মুহূর্তে সর্বস্তরে আলোচনার কেন্দ্রে। দেড় দিন কেটে গেলেও আতঙ্ক যেন কাটছেই না। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এখনও পর্যন্ত ২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজে চলছে জোরদার তল্লাশি। এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা নিয়ে ফের উদ্বেগপ্রকাশ করলেন বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং (Arjun Singh)। নিজের নিরাপত্তা ছাড়তে চান, সাংবাদিকদের বৈঠকে এমনই জানালেন তিনি। বললেন, ”সাংসদ হয়ে সাধারণ মানুষকে নিরাপত্তা দিতে পারছি না, আর আমি নিজে নিরাপত্তা নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছি!”

বারাকপুরের (Barrackpore) জনবহুল এলাকায় বুধবার ভর সন্ধেবেলা সোনার দোকানে ডাকাতি ও গুলি চালিয়ে খুনের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত গ্রেপ্তার হয়েছে ২ জন। আটক আরও দুই। ডিসি সেন্ট্রাল, আশিস মৌর্য জানান, শফি খান ও জামশেদ আনসারি। শফি খানকে খড়দহের রহড়া থানা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বীরভূমের (Birbhum) মুরারই থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে আনসারিকে। এরা ভাড়াটে খুনি বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, শফি আগেও চুরির অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছিল। পরে জামিনে ছাড়া পেয়ে ঝাড়খণ্ড পালিয়ে যায়। সেখানেই আরও ২ জনের সঙ্গে ডাকাতিতে হাত পাকায়। এরপর বারাকপুরের ঘটনা। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি চলছে। বারাকপুরের পুলিশ কমিশনার অলোক রাজোরিয়া আশ্বাস দিয়েছেন, দ্রুতই সকলে ধরা পড়বে। এলাকাবাসীর নিরাপত্তা নিয়ে আশ্বস্ত করেছেন তিনি। 

Advertisement

[আরও পড়ুন: সুখের সংসারে ‘উৎপাত’? বিয়ের ক’মাস বাদেই স্বরা ভাস্করের মুখে সতীনের নাম]

এই শুটআউটে পুলিশের সর্বাধিক গাফিলতির অভিযোগ তুলে আগেই সরব হয়েছিলেন বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং। আজ ফের নিরাপত্তার প্রশ্ন তুলে আক্ষেপের সুরে শোনা গেল তাঁর গলায়। অর্জুন সিংয়ের কথায়, ”অপরাধীরা নিরাপত্তা পাচ্ছে। আর সাধারণ মানুষ গুলি খেয়ে মরছে! জলজ্যান্ত নিরীহ ছেলেকে মেরে দিল! আমার নিরাপত্তা নিতে লজ্জা হয়। পুলিশ কম পড়লে আমি নিরাপত্তা ছেড়ে দেব।” তাঁর আরও অভিযোগ, ”জেল থেকে বসে ব্যবসায়ীদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। জেল থেকে বসে এক বিরিয়ানির ব্যবসায়ীদের কাছে স্করপিও গাড়ি চাওয়া হচ্ছে, মোটা টাকা তোলা চাওয়া হচ্ছে। কখনও বাইরের জেল থেকে, আবার কখনও সেন্ট্রাল জেল থেকে। এদের যারা কালেক্টর তাদের গ্রেপ্তার করলেই আসল মাথা পাওয়া যাবে। পুলিশকে তিন মাস আগে বলেছি, এদের ধরতে। পুলিশ মাথা ধরতে গিয়ে এরা পার পেয়ে যাচ্ছে।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: দ্বিতীয় বিয়ে করছেন স্বামী, খবর পেয়ে আবেগঘন পোস্ট আশিস বিদ্যার্থীর প্রথম স্ত্রীর!]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ