BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাজনৈতিক অশান্তিতে তপ্ত নৈহাটি, বিজেপি কার্যালয়ে ভাঙচুর, বোমাবাজিতে কাঠগড়ায় তৃণমূল

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: December 6, 2020 2:13 pm|    Updated: December 6, 2020 2:17 pm

Attack on two party offices of BJP at Naihati, TMC is accussed | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিধানসভা নির্বাচনের সময় যত এগোচ্ছে, রাজনৈতিক অশান্তি, সংঘর্ষের ঘটনা ততই বাড়ছে রাজ্যজুড়ে। এবার বিজেপির (BJP) পার্টি অফিসে হামলার অভিযোগ ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে উঠল উত্তর ২৪ পরগনার নৈহাটি। অভিযোগ, এখানকার একাধিক জায়গায় গেরুয়া শিবিরের কার্যালয়ে ভাঙচুর চালিয়ে বোমাবাজি করেছে তৃণমূল (TMC) আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। আক্রান্ত দলীয় সদস্যরাও। তবে বিজেপির এই অভিযোগ খারিজ করে শাসকদলের নেতৃত্বের পালটা দাবি, এসব বিজেপির গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফল। তৃণমূল এতে জড়িত নয়।

রবিবার সকালে দেখা যায়, নৈহাটির গড়িফা, মালঞ্চ এলাকার বিজেপি পার্টি অফিসগুলি কার্যত তছনছ হয়ে গিয়েছে। কার্যালয়ের ভিতরে সব লন্ডভন্ড, দলীয় পতাকা খুলে মাটিতে পড়ে। এসব দেখে বিজেপি কর্মীরা বুঝতে পারেন যে তাঁদের কার্যালয়ে হামলা চালানো হয়েছে। দুটি জায়গার পার্টি অফিসেরই প্রায় একই অবস্থা। মালঞ্চয় এক বিজেপি কর্মীর বাড়ির সামনে বোমাবাজি করা হয় বলেও অভিযোগ।

[আরও পড়ুন: জলাধারে সেলফি তুলতে যাওয়াই কাল! তলিয়ে গেলেন দুর্গাপুরের ২ যুবক]

 

গড়িফা এলাকার পার্টি অফিসে সাম্প্রতিককালের মধ্যে এ নিয়ে বার তিনেক হামলা হল বলে দাবি করছেন গেরুয়া শিবিরের কর্মীরা। বারাকপুর এলাকার সংগঠনের আহ্বায়কের অভিযোগ, সম্প্রতি এলাকায় বিজেপি শক্তিশালী হচ্ছে। তাই ভয় পেয়ে হামলা চালাচ্ছে তৃণমূল। অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করে তৃণমূলের দাবি, তারা এ ধরনের হামলার সঙ্গে জড়িত নয় একেবারেই। নিজেদের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের ফল ভুছে বিজেপি আর দোষ চাপানো হচ্ছে শাসকদলের ঘাড়ে।

[আরও পড়ুন: কোভিড হাসপাতালের ডাক্তার, নার্সদের জন্য বোর্ডিং-হোটেল খরচ আর নয়, জানাল রাজ্য়]

প্রসঙ্গত ভাটপাড়া, নৈহাটি-সহ বারাকপুর শিল্পাঞ্চলের একাধিক জায়গা অর্জুন সিংয়ের গড় বলে পরিচিত। একসময়ে শাসকদলের দাপুটে নেতা গত লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিতে যোগ দিয়ে বর্তমানে বারাকপুরের সাংসদ। তাঁর গড়ে রাজনৈতিক সংঘর্ষ প্রায় নিত্যদিনের ব্যাপার। তিনি বিজেপিতে যোগদান করায় সেখানে গেরুয়া শিবিরের শক্তি বাড়ছে, এ বিষয়ে কোনও সংশয় নেই। আর তাই শাসকদলের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনাও লেগেই থাকে। বিধানসভা ভোটের আগে তা আরও বেশি করে ঘটছে। নৈহাটিতে বিজেপির একাধিক কার্যালয়ে হামলা তারই প্রমাণ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে