১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে মোদিকে পেয়ারা উপহার দেবেন বারুইপুরের ট্যাক্সিচালক শহিদুল

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: November 24, 2018 6:42 pm|    Updated: November 24, 2018 6:42 pm

Bengal man Sahidul Laskar sends guava for PM Modi

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে রেডিও শোয়ে অংশগ্রহণের জন্য শনিবার দিল্লি রওনা হলেন বারুইপুরের ট্যাক্সিচালক শহিদুল লস্কর৷ সঙ্গে নিয়ে গেলেন বারুইপুরের বিখ্যাত পেয়ারা। ভাল কাজের সুবাদে সম্প্রতি ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে বসার জন্য আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন শহিদুল৷ কিন্তু, প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণ পেয়ে তাঁকে কী উপহার দেওয়া যায় তা ভেবে উঠতেই পারছিলেন না৷ বহু চিন্তা-ভাবনার পর অবশেষে নিয়েই ফেললেন সিদ্ধান্ত৷ নিজের এলাকার প্রসিদ্ধ পেয়ারা মোদির হাতে তুলে দেওয়ার লক্ষ্যে রাজধানী উড়ে গেলেন বাংলার গর্ব এই ট্যাক্সিচালক৷

[রঘুনাথপুরে পরকীয়ার বলি স্কুল শিক্ষক? স্ত্রীকে জেরা পুলিশের]

বারুইপুরের পুঁড়ি সীতাকুণ্ডু গ্রাম৷ বোন মারুফার স্মৃতিতে শহিদুল তৈরি করছেন হাসপাতাল৷ ২০০৪ সালে বিনা চিকিৎসায় মারুফার মৃত্যুর পর ট্যাক্সি চালিয়ে ও বিভিন্ন মানুষের দানের অর্থে গড়ে তুলছেন হাসপাতাল৷ হাসপাতাল সম্পূর্ণ করতে প্রয়োজন ১২ কোটি টাকা৷ ইতিমধ্যেই অনেকটা কাজ করে ফেলেছেন তিনি৷ ট্যাক্সি চালিয়ে সর্বসাধারণের জন্য হাসপাতাল তৈরি করার জন্য শহিদুলকে এই ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে সম্মান জানানো হবে বলে জানা গিয়েছে৷ প্রসার ভারতীর আমন্ত্রণে পেয়ে ইতিমধ্যেই রাজধানী রওনা দিয়েছেন তিনি৷ আগামিকাল, রবিবার ‘মন কি বাত’-এর ৫০তম পর্বে দিল্লির দূরদর্শন ভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রেকর্ডিং স্টুডিয়োতে থাকবেন বাংলার এই ট্যাক্সিচালক৷ ট্যাক্সি চালাতে চালাতে কেন হঠাৎ হাসপাতাল তৈরির উদ্যোগ নিলেন শহিদুল, সেই অভিজ্ঞতা তিনি শেয়ার করবেন গোটা ভারতবাসীর সঙ্গে৷ খোদ প্রধানমন্ত্রী শুনবেন শহিদুলের কথা৷ তবে, শহিদুল একা নন, তাঁর মতো আরও ২৯ জন প্রান্তিক মানুষ যাঁরা দেশের জন্য কাজ করছেন তাঁরাও থাকবেন অনুষ্ঠানে৷

[ভিনরাজ্যের মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে ঘরে ফেরাল পুলিশ]

দিল্লি রওনা হওয়ার আগে প্রসার ভারতীর আমন্ত্রণপত্র সঙ্গে নিয়ে সইদুল সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রীর জন্য কী উপহার নিয়ে যাব ভেবে পাচ্ছিলাম না৷ পরে, অনেক চিন্তা করে দেখলাম, আমাদের এলাকার প্রসিদ্ধ পেয়ারা যদি প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেওয়া যায়, তাহলে খুশি হবেন এলাকার কৃষকরা৷’’ পেয়ারা উপহার দেওয়ার পাশাপাশি হাসপাতালের অসম্পূর্ণ কাজ পূরণে প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিস্তারিত রিপোর্ট তুলে ধরবেন বলেও জানান৷ বলেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রীর হাতে ওই হাসপাতাল নির্মাণ সংক্রান্ত একটি ফাইল তুলে দেব৷ হাসপাতাল চালু করতে প্রয়োজনীয় সাহায্যের জন্য অনুরোধ জানাব৷’’

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে