BREAKING NEWS

১ কার্তিক  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৯ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

রাস্তার ধারে পড়ে শয়ে শয়ে মরা মুরগি, ছড়াল বার্ড ফ্লু-র আতঙ্ক

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: March 1, 2019 4:40 pm|    Updated: March 1, 2019 4:40 pm

Bird flu scare in Bhatar

ধীমান রায়, কাটোয়া: রাস্তার ধারে পড়ে শয়ে শয়ে মরা মুরগি। বার্ড ফ্লু-র আতঙ্ক পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে। ব্লকের প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন দপ্তরের আধিকারিক শঙ্খ ঘোষ অবশ্য জানিয়েছেন, এলাকায় মুরগির মড়কের কোনও খবর নেই। মরা মুরগিগুলি কোথা থেকে এল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

[প্রেমে প্রত্যাখ্যানের জের, কিশোরীকে বিষ মেশানো হজমি খাইয়ে খুনের অভিযোগ]

পূর্ব বর্ধমানের ভাতার ব্লকে মুরগির মড়ক! রোড সকালেই ভাতার বাজারে কাছেই ভাতার-কামারপাড়া রোডে প্রার্তভ্রমণে বেরোন অনেকেই। শুক্রবার সকালে তাঁরা দেখেন, রাস্তার পাশে পড়ে রয়েছে প্রায় শ’খানেক মরা মুরগি। কয়েকটি মরা মুরগি নিয়ে রীতিমতো টানাটানি করছে কাক ও কুকুরের দল। ঘটনাটি জানাজানি হতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। স্থানীয় বাসিন্দাদের আশঙ্কা, বার্ড ফ্লু-এ আক্রান্ত হয়ে মারা যাচ্ছে মুরগি। এদিকে বেলা বাড়তে জানা যায়, ভাতার ব্লকেরই বর্ধমান-কাটোয়া রোডের ধারে ধূমশোল গ্রামেও প্রায় শ’দেড়েক মরা মুরগি পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছে। তাতে আতঙ্ক আরও বেড়েছে।

জানা গিয়েছে, পূর্ব বর্ধমানের ভাতার ব্লকে মুরগির পোলট্রির সংখ্যা কয়েকশো। স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য, কোনও একটি মুরগির পোলট্রিতে হয়তো বার্ড ফ্লু-র সংক্রমণ ছড়িয়েছে। মৃত্যুর পর মুরগির দেহগুলি ফেলে দেওয়া হয়েছে রাস্তার ধারে। ভাতার ব্লকের প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন দপ্তরের আধিকারিক শঙ্খ ঘোষের বক্তব্য, পোলট্রি মালিকরা বিভিন্ন কোম্পানির সঙ্গে চুক্তির ভিত্তিতে মুরগি প্রতিপালন করেন। প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন দপ্তরের সঙ্গে কার্যত কোনও যোগাযোগই রাখেন না তাঁরা। তাই মুরগির মড়ক লাগলেও প্রশাসনের কাছে খবর পৌঁছয় না। তবে রাতারাতি এলাকায় এত মরা মুরগি কোথা থেকে এল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

[ শিক্ষক নেই, ক্লাস হয় না, মিড-ডে মিল খেয়েই বাড়ি ফেরে পড়ুয়ারা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement