১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

বিধায়ক মৃত্যুতে CBI তদন্তের দাবি, মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গে বনধ বিজেপির, CIDকে ভার রাজ্যের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 13, 2020 4:51 pm|    Updated: July 13, 2020 11:01 pm

An Images

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: হেমতাবাদের বিজেপি বিধায়কের মৃত্যুতে CBIতদন্তের দাবিতে ধারাবাহিক কর্মসূচি ঘোষণা করল রাজ্য বিজেপি। মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গ জুড়ে ১২ ঘণ্টার বনধ, বুধবার রাজ্যের থানাগুলিতে বিক্ষোভ, দিল্লিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দ্বারস্থ হওয়া-সহ একগুচ্ছ কর্মসূচি ঘোষণা করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সোমবার রাজ্য বিজেপির সদর দপ্তর থেকে মৌন মিছিলের পর একথা ঘোষণা করেছেন তিনি। এদিকে, রাজ্য সরকারের তরফে ইতিমধ্যেই সিআইডি-কে ভার দেওয়া হয়েছে। 

সোমবার সাতসকালে উত্তর দিনাজপুরের বিন্দোলের একটি চায়ের দোকান থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার হয়েছে হেমতাবাদের বিজেপি বিধায়ক দেবেন্দ্রনাথ রায়ের দেহ। ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। কীভাবে মৃত্যু, এই প্রশ্নে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতির অন্দরও। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা রায়গঞ্জের বিজেপি সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরি থেকে রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ – সিবিআই তদন্তের দাবিতে সরব হন। তবে শুধু মৌখিক দাবিতেই সীমাবদ্ধ থাকেননি তাঁরা। দিনের মাঝামাঝি সময়ে একগুচ্ছ কর্মসূচি ঘোষণা করেন দিলীপ ঘোষরা। সোমবারই দুপুরের দিকে সিবিআই তদন্তের দাবিতে রাজ্য বিজেপি সদর দপ্তর থেকে যোগাযোগ ভবন পর্যন্ত মৌন মিছিল করে বিজেপি নেতৃত্ব। শামিল ছিলেন দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহা, সায়ন্তন বসু, সব্যসাচী দত্ত-সহ একাধিক নেতানেত্রী, কর্মী, সমর্থক। মিছিল শেষ করে তাঁরা রাজ্যপালের দ্বারস্থ হন নিরপেক্ষ তদন্তের দাবিতে। সিআইডি তদন্তের নিরপেক্ষতায় ভরসা নেই বলেও জানিয়েছে বিজেপি রাজ্য নেতৃত্ব।

[আরও পড়ুন: ‘কে দিলীপ ঘোষ, যিনি গরুর দুধে সোনা পান?’, বিজেপি সাংসদকে কটাক্ষ মহম্মদ সেলিমের]

এরপর রাজ্য বিজেপির তরফে জানানো হয়, বিধায়ক খুনের প্রতিবাদে মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে সন্ধে ৬টা পর্যন্ত উত্তরবঙ্গ বনধ। দিলীপ ঘোষ জানান, ”আইনশৃঙ্খলার অবনতি ও রাজনৈতিক হিংসার প্রতিবাদে বনধ ডাকা হয়েছে। ঝগড়া করার জন্য বনধ নয়। সাধারণ মানুষকে আহ্বান করেছি। মানুষ বনধ সফল করবে।”

[আরও পড়ুন: ‘মানুষ গা ঘেঁষাঘষি করে থাকলে করোনা পালাবে’, তৃণমূল নেতার মন্তব্যে হাসির রোল]

বুধবার রাজ্যের বিভিন্ন থানায় বিক্ষোভ কর্মসূচি রয়েছে। বিজেপি নেতৃত্ব এ নিয়ে দিল্লির দ্বারস্থ হতে চায়। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর (Amit Shah) কাছে যাচ্ছে বিজেপির প্রতিনিধি দল। রাষ্ট্রপতির কাছে সময় চাওয়া হয়েছে, তাঁর সঙ্গে দেখা করবে গেরুয়া শিবিরের ওই প্রতিনিধি দলটি। প্রয়োজনে আদালতেও যাবেন তাঁরা। বোঝাই যাচ্ছে, দেবেন্দ্রনাথ রায়ের মৃত্যুকে হাতিয়ার করে ফের শাসকদলের বিরুদ্ধে নতুন করে লড়াইয়ের অস্ত্রে শান দিচ্ছে গেরুয়া শিবির।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement