BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘তুমি দাঙ্গাবাজ’, বিজেপি বিধায়ককে ঘিরে তুমুল বিক্ষোভ বাঁকুড়ায়, ভাইরাল ভিডিও

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 4, 2022 2:26 pm|    Updated: June 4, 2022 3:33 pm

BJP MLA Amarnath Shakha faces agitation by the local people for not working, video goes viral | Sangbad Pratidin

টিটুন মল্লিক, বাঁকুড়া: এলাকার উন্নয়নে কোনও কাজ করছেন না বিধায়ক। উলটে নানা কাজে বাধা দিচ্ছেন। বিজেপি (BJP) বিধায়কের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে তুমুল বিক্ষোভ এলাকাবাসীর। শুক্রবার বাঁকুড়ার (Bankura) ওন্দার বিধায়ক অমরনাথ শাখাকে ঘিরে এই বিক্ষোভের ভিডিও ভাইরাল। আর তার জেরে শনিবার থেকে রাজনৈতিক চাপানউতোর এলাকায়। বিধায়কের দাবি, তিনি ওন্দা এলাকায় যথেষ্ট কাজ করছেন। বিধায়ক তহবিলের টাকা সম্পূর্ণভাবে কাজে লাগানো হয়েছে। এসবই তৃণমূলের চক্রান্ত। পালটা দিয়েছে তৃণমূলও। মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছেন বিজেপি বিধায়ক, পালটা সরব তৃণমূল।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ওন্দার (Onda) বিজেপি বিধায়ক অমরনাথ শাখা গিয়েছিলেন কল্যাণীর ১৭ নম্বর বুথে, দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে। বুথস্তরে স্থানীয় মানুষজনের সঙ্গে কথা বলতে গিয়েছিলেন। আর সেখানে গিয়েই বিক্ষোভের (Agitation) মুখে পড়েন অমরনাথবাবু। তাঁকে ঘিরে ধরে স্লোগান দিতে থাকে স্থানীয় বাসিন্দারা। বিধায়ক হওয়া সত্ত্বেও তিনি কোনও কাজ করছে না বলে অভিযোগ তাঁদের। এলাকায় রাস্তা তৈরি হয়নি, অন্য কোনও কাজও করছেন না।

[আরও পড়ুন: কেকে’র মৃত্যুর পরেও বাতিল নয় কনসার্ট, জুলাইতে কলকাতায় আসছেন সোনু নিগম]

বিধায়ক অমরনাথ শাখাকে ঘিরে ধরে স্থানীয় বাসিন্দারা প্রশ্ন করতে থাকেন, তিনি এক বছরে কী কাজ করেছেন? এরপর সমস্বরে বিক্ষোভকারীরা বিধায়ককে ‘চোর, দাঙ্গাবাজ’ বলে সম্বোধন করে। এমনকী ‘দূর হঠো’ স্লোগানও দেন তাঁরা। যদিও বিধায়ক পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে দাবি করেছেন, তিনি মাত্র ১ বছর ধরে বিধায়ক পদে এসে কাজ শুরু করেছেন। প্রথম কিস্তির ৩০ লক্ষ টাকা রাস্তা সারাই, স্কুলে সাবমার্সিবল পাম্প বসানোর কাজে তা ব্যয় করা হয়েছে। বহু কাজই করছেন। আর যারা বিজেপির এসব কাজ সহ্য করতে পারছেন না, তাঁরাই বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন।

[আরও পড়ুন: Chaitali Lahiri: ‘বরটা বড়ই বোকা…’, কেকে বিতর্ক নিয়ে এবার কবিতা লিখলেন রূপঙ্করের স্ত্রী]

এদিকে, তৃণমূলের (TMC) ব্লক সভাপতি অশোক চট্টোপাধ্যায় বলেন, ”একজন বিধায়ক স্থানীয় মানুষদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে বিক্ষোভে পড়ছেন। এর চেয়ে লজ্জাজনক আর কী বা হতে পারে? মানুষই ওঁকে মেনে নিচ্ছে না, কীভাবে কাজ চালাবেন? মানুষকে ভুল বুঝিয়ে উনি ভোটে জিতেছেন। ভুল বুঝতে পেরে মানুষজনই বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে