BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘গোমূত্র পান রোগজীবাণু বাড়াতে পারে’, রাজ্য নেতৃত্বের উলটো সুর স্থানীয় নেতার

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 21, 2020 5:43 pm|    Updated: March 21, 2020 5:43 pm

An Images

জ্যোতি চক্রবর্তী বসিরহাট: গোমূত্র পান করা নিয়ে উলটপুরাণ। বসিরহাটের বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে ঘুরে জনসাধারণকে গোমূত্র পান না করার পরামর্শ দিলেন স্থানীয় বিজেপি নেতারাই। নেপথ্যে বসিরহাট সাংগঠনিক জেলার বিজেপির শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি রবীন ঘোষ। তাঁদের সাফ বক্তব্য, গোমূত্র পান করলে রোগজীবাণু নাশের বদলে তা বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। অসুখ করলে চিকিৎসক দেখানোই ঠিক। শনিবার সকালে বসিরহাট সাংগঠনিক জেলার বিজেপির ট্রেড ইউনিয়নের সভাপতি রবীন ঘোষ স্থানীয় বিজেপি নেতা,কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে এলাকায় ঘুরে মানুষজনকে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করেন। সেই সচেতনতার পাঠ হিসেবে তিনি গোমূত্রের অপকারিতা তুলে ধরেন সকলের কাছে।

Basirhat-bjp-anti-cow1

দেশজুড়ে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ বাড়ছে, ছড়িয়ে পড়ছে তীব্র আতঙ্ক। এই আতঙ্ককে কাজে লাগিয়ে বিজেপির একাধিক নেতা গোমূত্র পানের পরামর্শ দিচ্ছেন। বলছেন, গোমূত্র পান করলে করোনা ভাইরাস দূরে থাকবে। এমনকী রীতিমতো গোমূত্র পার্টি আয়োজন করে প্রকাশ্যে নিজেরাই গোমূত্র পান করছেন। তবে দলের নেতাদের উলটো পথে হাঁটলেন বসিরহাটের বিজেপি নেতা রবীন ঘোষ। গোমূত্র না খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে শুরু করলেন প্রচার।

[আরও পড়ুন: মানবিক পুলিশ, মৃতের সৎকারের জন্য পরিবারকে সাহায্য করলেন ওসি]

শনিবার সকাল থেকে হাতে গোমূত্র ও গোবর নিয়ে বসিরহাট পৌরসভার ২১ নম্বর ওয়ার্ডের ছোট জিরাকপুর এলাকার বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে ছাত্রছাত্রী, মহিলা-পুরুষ, বয়স্কদের করোনা ভাইরাস নিয়ে সচেতন করেন। রবীন ঘোষের কথায়, “গোমূত্র পঞ্চামৃতর মধ‍্যে একটি, পূজা পার্বণে একটি মহার্ঘ বস্তু হিসাবে কাজে লাগে। কিন্তু এটি গরুর শরীরের রেচন পদার্থ। মানুষের শরীরে গিয়ে বিষক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে। গোমূত্রের করোনা ভাইরাস বিনাশকারী কোনও ক্ষমতা নেই। মানুষকে এসব জানিয়ে কুসংস্কার দূর করতে পথে নেমেছি।”

[আরও পড়ুন: করোনার সংক্রমণ রোখার চেষ্টা, রাম নবমীর শোভাযাত্রা বাতিলের সিদ্ধান্ত VHP’র]

তাই করোনার কোনও রকম উপসর্গ ধরা পড়লে গোমূত্র পান নয়, চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার আবেদন জানান তিনি। বিষয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন করেন। গোমূত্রর বিরুদ্ধে সচেতনতামূলক প্রচারে নামায় তাঁদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন এলাকার শুভবুদ্ধি সম্পন্ন মানুষ। স্থানীয় এক শিক্ষকের কথায়, “বিজেপি নেতারা প্রকাশ্যে গোমূত্র পান করার কথা বলছেন, কিন্তু রবীন ঘোষ বিজেপি নেতা হয়েও কুসংস্কারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছেন। ধন্যবাদ তাঁকে।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement