BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

উত্তরবঙ্গে ৫৫টির মধ্যে কটি আসন পাবে বিজেপি? আগাম বলে দিলেন দিলীপ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 28, 2020 9:38 am|    Updated: January 28, 2020 10:15 am

BJP will bag atleast 50 seats from North Bengal in Assembly election,says Dilip Ghosh

ফাইল ছবি

বাবুল হক, মালদহ: আগামী বিধানসভায় উত্তরবঙ্গের ৫৫ টির মধ্যে অন্তত ৫০টি আসন আসবে বিজেপির দখলে। সোমবার অভিনন্দন যাত্রার আগে মালদহ থেকে এমনই দাবি তুললেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। পুরাতন মালদহের বুলবুলি বাজার মোড়ে ‘চায়ে পে চর্চা’য় জনসংযোগ সারার ফাঁকেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এই আশা প্রকাশ করেন তিনি। আত্মবিশ্বাসের সুরে বলেন, ”বিধানসভায় উত্তরবঙ্গের ৫৫টি আসনের মধ্যে ৫০টিতেই জিতবে বিজেপি।”

CAA নিয়ে অভিনন্দন যাত্রায় নেমেছে রাজ্য বিজেপি। উত্তরবঙ্গে চলছে এই কর্মসূচি। রবিবার বালুরঘাটের পর সোমবার মালদহে ছিল দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে অভিনন্দন যাত্রা। এদিন সকালে পুরাতন মালদহের বাজারে চায়ের আড্ডায় জনসংযোগ নামেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। সঙ্গে ছিলেন বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদারও।’চায়ে পে চর্চা’র পাশাপাশি মঙ্গলবাড়ি এলাকায় হেঁটে ঘোরেন তাঁরা। স্থানীয়দের সঙ্গে কথাবার্তাও বলেন।

[আরও পড়ুন: ভাঙল বর্ণ-লিঙ্গের বৈষম্য, এবার সরস্বতী পুজোয় পুরোহিতের আসনে আদিবাসী ছাত্রী]

এসবের ফাঁকেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন দিলীপ ঘোষ। এলাকার রাজনৈতিক পরিস্থিতি কেমন বুঝছেন, সাংবাদিকদের এই প্রশ্নের উত্তরেই তিনি জানান, ”আগামী বিধানসভায় উত্তরবঙ্গের ৫৫টি আসনের মধ্যে ৫০টিতেই জিতবে বিজেপি। এটা নিশ্চিত, দলকে আরও চাঙা করতে লাগাতার কাজ করে যাচ্ছি। মানুষ বুঝিয়ে দিচ্ছেন, তাঁরা কী চান। CAA’র সমর্থনে যেখানেই অভিনন্দন যাত্রা করছি, সেখানেই জনতার ভিড়। দিন দিন এই ভিড় রেকর্ড তৈরি করছে।” বিজেপির সভায় ভিড় বাড়ছে, এই দাবির পাশাপাশি রাজ্যের শাসকদলের সমাবেশে যে জনসমাগম ক্রমশই ফিকে হচ্ছে, সেই খোঁচাও দিলেন দিলীপ ঘোষ।

গত লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে অভাবনীয় সাফল্য পেয়েছে গেরুয়া শিবির। একটিতেও জিততে পারেনি শাসকদল তৃণমূল। দার্জিলিং থেকে শুরু করে মালদহ পর্যন্ত, সবকটি আসন দখল করেছে বিজেপি। আর সেই সাফল্যের উপর দাঁড়িয়েই একুশের বিধানসভাতেও বাজিমাত করতে চায় কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন দলটি। আর বঙ্গে সাফল্য লাভ করতে পারলেই শীর্ষ নেতৃত্বের লক্ষ্য ষোল আনা পূরণ হয়ে যাবে। আর দলের রাজ্য সভাপতি হিসেবে দিলীপ ঘোষ একুশ বিধানসভার আগে সাংগঠনিক পরিস্থিতি বুঝে নিতে চাইছেন। তাই তাঁর তিনদিনের উত্তরবঙ্গ সফর। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনটিও বঙ্গবাসী কীভাবে গ্রহণ করছে, তা বুঝে নেওয়াও বিজেপির লক্ষ্য। আর সেই কাজের ভার শীর্ষ নেতৃত্ব দিয়েছে দলের রাজ্য সভাপতির কাঁধেই।

[আরও পড়ুন: পুলিশের তৎপরতায় নকল ঘি তৈরির রমরমা কারবারের পর্দাফাঁস, আটক ২]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে