১ আষাঢ়  ১৪২৬  রবিবার ১৬ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ

১ আষাঢ়  ১৪২৬  রবিবার ১৬ জুন ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভোট পরবর্তী হিংসাকে কেন্দ্র করে গুলি চলল কোচবিহারে৷ সোমবার গভীর রাতে বিজেপি এবং তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের সংঘর্ষে উত্তপ্ত সিতাইয়ের ব্রহ্মত্র চাতরা এলাকা৷ গুলিবিদ্ধ হয়ে জখম এক বিজেপি কর্মী৷ আহত বিজেপি কর্মীর নাম জয়দেব বর্মন। তাঁর পেটে গুলি লেগেছে। এই ঘটনায় জখম হয়েছেন আরও তিনজন৷ প্রত্যেকেই কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভরতি৷ রাজনৈতিক সংঘর্ষের ঘটনায় চলছে তৃণমূল-বিজেপি অভিযোগ-পালটা অভিযোগের পালা৷ 

[ আরও পড়ুন: এক্সিট পোলে খুশির হাওয়া বঙ্গ বিজেপিতে, বুথভিত্তিক হিসেবনিকেশে ব্যস্ত নেতারা]

প্রথম দফাতেই কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হয়৷ তারপর থেকে প্রায়শই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে এই জেলার বিভিন্ন এলাকায়৷ সোমবার রাতে বিজেপি এবং তৃণমূল সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সিতাইয়ের ব্রহ্মত্র চাতরা এলাকা৷ ঠিক কী হয়েছিল এদিন? গভীর রাতে আচমকাই গুলির শব্দ শুনতে পান স্থানীয়রা৷ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাঁরা দেখেন, রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় লুটিয়ে পড়ে রয়েছেন জয়দেব বর্মন নামে এক ব্যক্তি৷ এছাড়াও কমবেশি জখম হয়েছেন তিন-চারজন৷ প্রত্যেকেই সক্রিয় বিজেপি কর্মী হিসাবে পরিচিত৷ জয়দেবের পেটে গুলি লাগে৷ তড়িঘড়ি প্রত্যেককেই উদ্ধার করে কোচবিহার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ বাকি তিন-চারজনকে ছেড়ে দেওয়া হলেও জয়দেব এখনও ভরতি হাসপাতালে৷ অস্ত্রোপচারও হয়েছে তাঁর৷

[ আরও পড়ুন: টানা দু’মাস গ্রীষ্মের ছুটি চাই না, অবিলম্বে স্কুল খোলার দাবিতে ডুয়ার্সে পড়ুয়াদের মিছিল]

এই ঘটনাকে হাতিয়ার করে তৃণমূলকে দুষছেন স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব৷ কোচবিহারের বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিকের অভিযোগ, সিতাইয়ের তৃণমূল বিধায়ক জগদীশ বর্মা বসুনিয়ার মদতেই তাঁর অনুগামীরা বিজেপি কর্মীদের উপর হামলা চালিয়েছে৷ তাঁর আরও অভিযোগ, দুষ্কৃতীরা রীতিমতো একে-৪৭ রাইফেল নিয়ে এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়েছে৷ যদিও গেরুয়া শিবিরের অভিযোগে কান দিতে নারাজ ঘাসফুল শিবির৷ পালটা এই ঘটনাকে বিজেপির অন্তর্কলহ বলেই দাবি তাঁদের৷ এই ঘটনার পর থেকে থমথমে গোটা এলাকা৷ মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী৷

ছবি: দেবাশিস বিশ্বাস

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং