৩ ফাল্গুন  ১৪২৬  রবিবার ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo দিল্লি ২০২০ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩ ফাল্গুন  ১৪২৬  রবিবার ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যুবকের দগ্ধ দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল এলাকায়। বৃহস্পতিবার সকালে উত্তর ২৪ পরগনার নিমতা এলাকা থেকে উদ্ধার হয়েছে ওই যুবকের দগ্ধ দেহ। ইতিমধ্যেই দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। কী কারণে এই নৃশংস ঘটনা, তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয়েছে এক যুবককে।

জানা গিয়েছে, বুধবার রাতে লোনের টাকা দেওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন শেখ জসিম নামে ওই যুবক। এরপর দীর্ঘক্ষণ পেরিয়ে গেলেও বাড়ি ফেরেননি তিনি। এলাকার বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করতেও হদিশ মেলেনি তাঁর। পরে বৃহস্পতিবার সকালে কল্যানী এক্সপ্রেসওয়ে সংলগ্ন ফতুল্লাপুর এলাকার একটি মাঠে একটি দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। এলাকার বাসিন্দা এক বধূ দেহটি দেখে শনাক্ত করেন যে মৃত ব্যক্তি তাঁর স্বামী শেখ জসিম। এরপরই ঘটনাস্থলে যায় বিশাল পুলিশ বাহিনী। দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয় কামারহাটির সাগরদত্ত হাসপাতালে।

[আরও পড়ুন: চালকের ভুলে স্টেশন পেরিয়ে ছুটল ট্রেন, শান্তিপুর লোকালের ঘটনায় শুরু বিভাগীয় তদন্ত]

মৃতের পরিবারের সদস্যদের কথায়, বুধবার রাতে বারুদ নামে এক যুবকের সঙ্গে ছিলেন শেখ জসিম। একসঙ্গে মদ্যপানও করেন তাঁরা। অনুমান, সেই মদের আসরেই টাকা পয়সা নিয়ে বচসায় জড়িয়ে পড়েছিল তাঁরা। সেই কারণেই জসিমকে ভারী বস্তু দিয়ে আঘাত করে খুন করে বারুদ। এরপর প্রমাণ লোপাট করার জন্য পুড়িয়ে দেওয়া হয় দেহ। ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত বারুদকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে আদতে কী কারণে খুন, তা জানতে তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন তদন্তকারীরা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং