BREAKING NEWS

৮ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২২ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

মদ্যপের সঙ্গে হাতাহাতি-বচসা, বেলুড়ে ছুরির ঘায়ে জখম ১

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 30, 2018 2:31 pm|    Updated: June 30, 2018 2:37 pm

Brwal in Belur, one stabbed

অরিজিৎ গুপ্ত, হাওড়া: বচসা থেকে হাতাহাতি এবং তারপর ছুরিকাঘাতে জখম এক যুবক৷ বেলুড়ের ধর্মচক্র এলাকার রাজেন শেঠ লেনের ঘটনা৷ রক্তাক্ত অবস্থায় জখম ওই যুবককে প্রথমে ঘুসুড়ির জয়সওয়াল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া নিয়ে হয়৷ অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় পরে কলকাতায় মেডিক্যাল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়েছে৷ বেলুড় থানার পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমেছে৷ তবে আপাতত পলাতক অভিযুক্ত শাহজাদা৷ তার খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ৷

[‘বড়ভাই’ লিচুকে পিছনে ফেলে বিদেশের পথে বাংলার আঁশফল]

রাজেন শেঠ লেনের বাসিন্দা শাহজাদা এলাকার ত্রাস বলেই পরিচিত৷ নানা ছোটবড় কারণে এলাকায় অশান্তি করত সে৷ মদ্যপ অবস্থায় এলাকার মহিলা থেকে পুরুষ প্রত্যেককেই উত্যক্ত করাই ছিল শাহজাদার একমাত্র কাজ৷ বৃহস্পতিবার রাতে মদ্যপান করছিল শাহজাদা৷ আচমকাই শেখ নাসিরউদ্দিন ওরফে মুন্না নামের স্থানীয় এক যুবকের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়ে শাহজাদা৷ বচসা গড়ায় হাতাহাতিতে৷ মারপিটের মাঝেই নাসিরউদ্দিনের পেটে ছুরি ঢুকিয়ে দেয় সে৷ সঙ্গে সঙ্গে রাস্তায় লুটিয়ে পড়ে সে৷ রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় ছটফট করতে শুরু করে নাসিরউদ্দিন৷ জড়ো হয়ে যান স্থানীয়রা৷ এলাকার মানুষজনই নাসিরউদ্দিনকে তড়িঘড়ি  উদ্ধার করে৷ প্রথমে হাওড়ার জয়সওয়াল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে৷ প্রাথমিক চিকিৎসার পর পর কলকাতায় মেডিক্যাল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয় নাসিরউদ্দিনকে৷  সেখানেই এখনও ভরতি রয়েছে সে৷

[শচীন রাজি হলেও নারাজ সৌরভ, বিপাকে সাফারি পার্ক কর্তৃপক্ষ]

স্থানীয় বাসিন্দাদের থেকেই ঘটনার খবর পায় বেলুড় থানার পুলিশ৷ কিন্তু ততক্ষণে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায় শাহজাদা৷ তার খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে৷ এর আগেও একাধিকবার এলাকায় অশান্তি ছড়ানোর অভিযোগ রয়েছে শাহজাদার বিরুদ্ধে৷ কিন্তু প্রতিবারই গ্রেপ্তারি এড়িয়েছে সে৷ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের দাবিতে এলাকায় বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয়রা৷ শাহজাদাকে গ্রেপ্তারির আশ্বাস দিয়েছেন তদন্তকারীরা৷ এরপরই স্বাভাবিক হয় এলাকার পরিস্থিতি৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে