১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা রুখতে গ্রামে ব্যারিকেড দেওয়াকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র রায়না, গ্রেপ্তার ১২

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 22, 2020 7:41 pm|    Updated: April 22, 2020 7:44 pm

An Images

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: করোনা (Corona Virus) সংক্রমণ রুখতে অধিকাংশ মানুষই সচেতন হয়েছেন। বাধ্য হয়ে মাঝে মধ্যে ঘর থেকে বের হলেও ব্যবহার করছেন মাস্ক। বারবার স্যানিটাইজ করছেন হাত। কোথাও কোথাও আবার সংক্রমণের আশঙ্কায় এলাকার প্রবেশ দ্বারই আটকে দিচ্ছেন স্থানীয়রা। সেই প্রবেশ পথে ব্যারিকেড দেওয়াকে কেন্দ্র করেই ধুন্ধুমার বর্ধমানের রায়নার মূলকাঠি গ্রাম। গ্রেফতার করা হয়েছে ১২ জনকে। বুধবারই আদালতে তোলা হয় তাদের।

সম্প্রতি খণ্ডঘোষ থানা এলাকার একটি গ্রামের এক বাসিন্দার শরীরে মিলেছে করোনার জীবাণু। এতেই সংক্রমণের আতঙ্ক এক ধাক্কায় কয়েকগুণ বেড়েছে এলাকায়। বিভিন্ন গ্রামে ব্যারিকেড করে বহিরাগতদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন বাসিন্দারাই। মূলকাঠি গ্রামের বাসিন্দারাও বহিরাগতদের প্রবেশ রুখতে ব্যারিকেড করে দেন প্রবেশপথে। যার ফলে আশেপাশে কয়েকটি গ্রামের বাসিন্দাদের যাতায়াতে সমস্যা তৈরি হয়। এই নিয়েই উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার সন্ধেয় উদয়কৃষ্ণপুরের বাসিন্দা শেখ সফিয়েল হক মূলকাঠি গ্রামের রাস্তা ধরে বাড়ি ফিরছিলেন। সেই সময় তাঁর উপর হামলা করে মূলকাঠি গ্রামের বাসিন্দারা। পরে উদয়কৃষ্ণপুরের বাসিন্দারা পালটা হামলা করে মূলকাঠি গ্রামে। কয়েকটি বাড়িতে ভাঙচুর করে বলে অভিযোগ।

[আরও পড়ুন: ফের করোনা আক্রান্ত রাজ্যের এক চিকিৎসক, নার্স ও ক্যানসার রোগীর শরীরেও ভাইরাস সংক্রমণ]

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। দীর্ঘক্ষণ পর নিয়ন্ত্রণে আসে পরিস্থিতি। এই ঘটনায় সফিয়েল ও গোলেহারা শেখ নামে দুই পৃথক দুইটি অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হয় ১২ জনকে। বুধবার তাদের আদালতে তোলা হলে মূলকাঠি গ্রামের বাসিন্দা শেখ হারুনের জামিন মঞ্জুর করেছেন বিচারক। বাকি অভিযু্ক্তদের বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

[আরও পড়ুন: ঘরের মধ্যে হঠাৎ হঠাৎ জ্বলে উঠছে আগুন! অশরীরি নাকি অন্য কিছু? আতঙ্কে গৃহস্থ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement