BREAKING NEWS

১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘ভিড় নিয়ন্ত্রণে আরও বেশি লোকাল ট্রেন চালান’, প্রথম দিনের পরিস্থিতি দেখে আরজি মমতার

Published by: Paramita Paul |    Posted: November 11, 2020 6:48 pm|    Updated: November 11, 2020 6:48 pm

West Bengal news: CM Mamata Bannerjee asks for increasing number of local trains to avoid crowd amid pandemic | Sangbad Pratidin

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: মহামারী পরিস্থিতিতেই বুধবার থেকে বাংলায় লোকাল ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে।তবে  অনেক কম সংখ্যক ট্রেন চলছে। ফলে বাড়ছে ভিড়। পরিস্থিতি সামাল দিতে নিয়মিত আরও বেশি সংখ্যক লোকাল ট্রেন (Local Train) চালানোর আরজি জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একইসঙ্গে রাজ্যের অটো-বাস-ট্যাক্সির ফিটনেস সার্টিফিকেট সংক্রান্ত জরিমানা নিয়েও বড় ঘোষণা করলেন তিনি।

লকডাউনের গোড়া থেকে থমকে ছিল লোকাল ট্রেন পরিষেবা। সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে এই পরিষেবা চালুর ছাড়পত্র দেওয়া হচ্ছিল না। লোকাল ট্রেন বন্ধ থাকায় হয়রানি মুখে পড়েছিল আমজনতা। তাঁদের ক্ষোভ সামাল দিতে শেষপর্যন্ত কয়েকটি শাখায় কিছু সংখ্যক লোকাল ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। সামাজিক দূরত্ব মানার নির্দেশ দেওয়া হলেও অনেকক্ষেত্রেই তা মানা হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। ফলে সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কা তৈরি্ হচ্ছে। সে দিকে নজর রেখেই আরও বেশি সংখ্যক লোকাল ট্রেন চালুর আরজি জানিয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন : মাধ্যমিক-উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার নিয়মে বড় বদল, নয়া সিদ্ধান্ত ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর]

এদিন নবান্নের সভাঘরের সাংবাদিক বৈঠক থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Bannerjee) বলেন, “এই অতিমারির মধ্যে আজ থেকে ট্রেন চলা শুরু হয়েছে। কারণ সাধারণ মানুষের কথা ভেবেছি আমরা। তাঁদের রোজগারটাও মার খাচ্ছিল।” এরপরই তিনি  আরজি জানান, “আমরা রেলকে বলব সংখ্যায় বেশি ট্রেন চালান। গাদাগাদি করে লোক উঠলে কোভিড বাড়তে পারে। ট্রেন বেশি চালালে সামাজিক দূরত্বটা বজায় থাকবে। দুটি ট্রেনের মধ্যেকার সময়ের ব্যবধান কমান।”

মমতা আরও বলেন, “ভিড় কমাতে আবার আমাদের অটো বাস ট্যাক্সির একটা ভূমিকা আছে। তাঁদের সার্টিফিকেট অফ ফিটনেস ক্যাটাগরির ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে পেনাল্টি মকুব করার জন্য আমাদের কাছে আবেদন করেছিল। তিন মাস আমরা মকুব করেছিলাম। এটা এবার আমরা ৩০ জুন ২০২১ পর্যন্ত বাড়িয়ে দিলাম। এই সময় পর্যন্ত কোনও পেনাল্টি দিতে হবে না।”

এদিন সকাল থেকেই দক্ষিণ, দক্ষিণ-পূর্ব ও পূর্ব রেলের বিভিন্ন স্টেশনে চোখে পড়ার মতো ভিড় ছিল। টিকিট কাউন্টারের বাইরে সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনেই ছিল লম্বা লাইন। স্টেশনে ঢোকার আগে থার্মাল স্ক্যানিং হয়েছে। যাত্রীরাও মাস্কে মুখ ঢেকেছিলেন। কিন্তু কোথাও কোথাও ট্রেনে ওটা-নামার তাড়ায় শিকেয় উঠেছিল সামাজিক দূরত্ববিধি। সেই পরিস্থিতি সামাল দিতেই বেশি সংখ্যক ট্রেন চালানোর আরজি জানালেন মমতা। 

[আরও পড়ুন : একুশের আগে কর্মসংস্থানে জোর, শিক্ষক নিয়োগ, পুলিশে নতুন ৩ ব্যাটেলিয়নের ঘোষণা মমতার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে