BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ফের রাজ্যে আসছে কেন্দ্রের প্রতিনিধি দল

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: July 26, 2020 11:25 am|    Updated: July 26, 2020 11:41 am

An Images

ফাইল ফটো

ক্ষীরোদ ভট্টাচার্য: করোনা সংক্রমণ সম্পর্কে বিশদে তথ্য জোগাড় করতে ফের রাজ্যে আসছে আইসিএমআর (ICMR) -এর প্রতিনিধিরা। এগারোটির বেশি জায়গায় গোষ্ঠী সংক্রমণের ইঙ্গিত মিলেছে। আবার কয়েকটি জেলায় নামমাত্র সংক্রমণ। দুই এলাকার অবস্থা যাচাই করতে তৃতীয় দফায় রাজ্যে আসছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের প্রতিনিধি দল। আইসিএমআরের সঙ্গে স্বাস্থ্য কর্তাদের সঙ্গে কথা হয়েছে।

এর আগে দুদফায় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের প্রতিনিধি দল রাজ্যে আসে। দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্স (AIIMS), চণ্ডীগড়ের পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ইনস্টিটিউট ও পুনের ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজির গবেষকদের নিয়ে গঠিত দলটি আগামী মাসের গোড়ায় রাজ্যে আসবে।

[আরও পড়ুন: বাদ সাধল করোনা, হরিয়ানা থেকে রায়গঞ্জ এসেও প্রেমিকাকে বিয়ে করতে পারলেন না যুবক]

এপ্রসঙ্গে স্বাস্থ্য অধিকর্তা ডা. অজয় চক্রবর্তী বলেন, “শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, দিল্লি, মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব-সহ কোভিড অধ্যুষিত এলাকায় করোনা ভাইরাস (Corona Virus) নিয়ন্ত্রণে কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আর কী কী ব্যবস্থা নেওয়া উচিত সেই সম্পর্কে পরামর্শ দেওয়ার জন্য এই পদক্ষেপ।” সরকারি হাসপাতালের পাশাপাশি কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতালেও প্রয়োজনে পরিদর্শন করতে পারে কেন্দ্রীয় বিশেষজ্ঞ দল। জানা গিয়েছে, আইসিএমআরের প্রতিনিধি দল মূলত কলকাতা ও উত্তরবঙ্গের কয়েকটি হাসপাতাল ও কোয়ারেন্টাইন সেন্টার পরিদর্শন করতে পারে। তবে দিনক্ষণ এখনও ঠিক হয়নি।

স্বাস্থ্যভবন সূত্রে খবর, রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে কোভিড রোগীদের সম্পর্কে বিশদে সরাসরি তথ্য জোগাড় করতে মোবাইল অ্যাপ তৈরির পরামর্শ দিয়েছে আইসিএমআর। অ্যাপ তৈরির জন্য সরকারি সংস্থা ওয়েবেলে সঙ্গে একপ্রস্থ আলোচনাও হয়েছে স্বাস্থ্য কর্তাদের। আগামী মাসে নতুন অ্যাপ চালু হবে বলে স্বাস্থ্য অধিকর্তা আশা প্রকাশ করেছেন। স্বাস্থ্যদপ্তর উপসর্গহীন ও হাসপাতালে ভরতি করোনা রোগীদের তথ্য কম্পিউটারে নথিভুক্ত করেছে। কয়েকমাস ধরে নিয়মিত মেল করে করোনা তথ্য জানানো হত। কেন্দ্রীয়ভাবে মোবাইল অ্যাপ তৈরি হলে স্বাস্থ্যভবনে করোনা সম্পর্কে তথ্য এলে সঙ্গে সঙ্গে তা আইসিএমআরকে জানানো যাবে।

[আরও পড়ুন: শ্বাসকষ্টের রোগীকে অ্যাম্বুল্যান্সে তোলার সময়ে পড়ে গিয়ে মৃত্যু, করোনাতঙ্কে কাছে গেল না কেউ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement