৩ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৭ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo ফিরে দেখা ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩ মাঘ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৭ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

ধীমান রায়, কাটোয়া: নার্সিংহোম থেকে ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে সদ্যোজাত শিশু কেনার ঘটনা ফাঁস হওয়ায় বর্ধমান শহরেই শিশু চুরির চক্রের অপারেশন ঘিরে চাঞ্চল্য চরমে উঠেছে। পুলিশ কাটোয়ার পানুঘাট দিঘিরপাড়ের বাসিন্দা প্রদীপ বিশ্বাস ও অনুশ্রী বিশ্বাসকে গ্রেপ্তার করেছে। শিশুটি তাঁরাই কিনেছিলেন। তাঁদের জেরা করে কাটোয়া থানার পুলিশ বর্ধমান শহরের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমের টেকনিশিয়ান শৈবাল রায়কে গ্রেপ্তার করেছে। পুর্ব বর্ধমান জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (গ্রামীণ) ধ্রুব দাস বলেন, “শিশুটিকে চাইল্ডলাইনের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। শিশুটির প্রকৃত বাবা মা কে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।” এই ঘটনার পিছনে শিশুচুরির চক্র কাজ করছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

১১ বছর আগে বিয়ে হয়েছে। কিন্তু তাদের এখনও সন্তান হয়নি। সেই দম্পতির কোলে হঠাৎ করে প্রতিবেশীরা দেখলেন একটি ফুটফুটে বাচ্ছা। প্রতিবেশীরা অনেকে ভেবেছিলেন আধুনিক চিকিৎসার দ্বারা হয়তো ওই দম্পতি সন্তানের বাবা মা হয়েছেন। কিন্তু মেয়েমহলে সন্দেহ থেকেই যায়। কারণ মহিলার সন্তানধারণের কোনও লক্ষণ পাড়ার মহিলারা দেখতে পাননি। অবশেষে সেই রহস্যের কিনারা করল পুলিশ। স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে কাটোয়া থানার পুলিশ বুধবার সন্ধ্যায় হানা দেয় কাটোয়ার পানুহাট দিঘিরপাড়ে ওই বাড়িতে। দম্পতিকে জেরা করতেই পর্দাফাঁস। পুলিশের জেরায় দম্পতি স্বীকার করেছেন তাঁরা বেআইনিভাবেই বর্ধমান শহরের একটি নার্সিংহোম থেকে ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে সদ্যোজাত শিশুটি গত জুন মাসে কিনে এনেছিলেন।

[আরও পড়ুন: গুলি ছুঁড়ে বর বরণ! নেটদুনিয়ায় ভাইরাল কাটোয়ার বন্দুকধারী কনের ছবি]

জানা গিয়েছে, পানুহাট দিঘিরপাড়ের বাসিন্দা প্রদীপ বিশ্বাস পেশায় কাঠমিস্ত্রি। তিনি তার স্ত্রী অনুশ্রীদেবী ও প্রদীপবাবুর মাকে নিয়ে তিনজনের সংসার। প্রদীপবাবুদের প্রায় ১১ বছর আগে বিয়ে হলেও সন্তান হয়নি। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরেই পাড়াপ্রতিবেশীরা অনুশ্রীদেবীর কোলে একটি শিশুকন্যাকে দেখতে পান। পাড়ার মেয়েরা জিজ্ঞাসা করলে অনুশ্রীদেবী তাঁদের জানান এটা তাঁরই সন্তান। কিন্তু পাড়ার একাংশের সন্দেহ থেকেই যায়। স্থানীয় এলাকা থেকে চাইল্ডলাইনে খবর দেওয়ার পর বৃহস্পতিবার পুলিশ দম্পতির বাড়িতে যায়। পুলিশ কাজগপত্র দেখতে চাইলে মহিলা বর্ধমানের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমের কাগজ দেখান। তাতে দেখা যায় গত ২৮ জুন ওই নার্সিংহোমে ওই শিশুটি জন্মগ্রহণ করেছে। যদিও কাগজটিতে দম্পতির নামই নথিভুক্ত আছে। কিন্তু পুলিশের জেরায় শেষ পর্যন্ত অনুশ্রীদেবী ও প্রদীপবাবু স্বীকার করেন তাঁরা ওই নার্সিংহোম থেকে ১০ হাজার টাকায় বাচ্চাটিকে কিনেছেন।

[আরও পড়ুন: স্মৃতিভ্রষ্ট হয়ে দু’বছর একাকী, চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে ছেলের কাছে ফিরলেন মা]

ছবি: জয়ন্ত দাস

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং