BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা জয়ে রেকর্ড গড়ল রাজ্য, ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হলেন ৩৩৬ জন

Published by: Sulaya Singha |    Posted: June 13, 2020 8:02 pm|    Updated: June 13, 2020 8:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনায় মৃত্যুর হারের তুলনায় সংক্রমণের হার অনেক বেশি। মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েও বহু মানুষ সুস্থ হয়ে উঠেছেন। তাঁরাই নতুন করে লড়াইয়ের শক্তি জোগাচ্ছেন। তাই করোনা নিয়ে আতঙ্কিত হতে সর্বদাই বারণ করছেন চিকিৎসকরা। তবে রাজ্য তথা গোটা দেশে বাড়তে থাকা সংক্রমিতের সংখ্যাটা উদ্বেগ বাড়াচ্ছেই। শনিবারও যেমন জানা গেল বাংলায় ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত সাড়ে চারশোরও বেশি মানুষ। কিন্তু একইসঙ্গে স্বস্তি দিচ্ছে একদিনে সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যাটাও।

সংক্রমিতের সংখ্যার নিরিখে শুক্রবারই অতীতের নিজস্ব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছিল রাজ্য। আক্রান্ত হয়েছিলেন ৪৭৬ জন। এদিন সংখ্যাটা সামান্য কম। রাজ্যের স্বাস্থ্যদপ্তরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৫৪ জন। রাজ্যে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ১০ হাজার ৬৯৮। এদের মধ্যে অ্যাকটিভ কেস ৫ হাজার ৬৯৪। আনলক ওয়ানে এই সংখ্যাটা নিঃসন্দেহে অত্যন্ত উদ্বেগের। তবে আশার আলো দেখাচ্ছে সুস্থ হওয়ার মাত্রা।

[আরও পড়ুন: ‘আগুন জ্বালাতে আসবেন না, ছারখার হয়ে যাবেন’, শান্তনু ঠাকুরকে হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল নেতা]

২৪ ঘণ্টায় ৩৩৬ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরলেন। রাজ্যে এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪,৫৪২ জন। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার হার ৪২.৪৫ শতাংশ। করোনার চোখ রাঙানি উপেক্ষা করেই কাজে বেরতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফেরার তাগিদে খুলে গিয়েছে শপিং মল, রেস্তরাঁ, ধর্মীয় স্থান। তবে প্রতিনিয়ত রয়েছে সংক্রমণের ভয়। এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যের বাড়তে থাকা করোনাজয়ীদের সংখ্যাই যেন সাহস জোগাচ্ছে ঘুরে দাঁড়ানোর।

এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনার বলি ১২ জন। স্বাস্থ্যদপ্তর নয়া তথ্য বলছে, এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট ৪৬৩ জন COVID-19 রোগীর মৃত্যু হয়েছে। করোনা রুখতে বেশ কিছু পদক্ষেপের পাশাপাশি নিয়মিত চলছে নমুনা পরীক্ষাও। এদিনের প্রকাশিত বুলেটিন বলছে, ২৪ ঘণ্টায় টেস্ট হল ৯,০০৮ জনের। এখনও অবধি মোট ৩ লক্ষ ২৪ হাজার ৭০৭টি স্যাম্পেল টেস্ট হয়েছে। 

[আরও পড়ুন: বিজেপির প্রতিবাদ মিছিলে বাধা, পুলিশের সঙ্গে গেরুয়া শিবিরের খণ্ডযুদ্ধে রণক্ষেত্র দত্তপুকুর]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement