১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ৫ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ৫ ডিসেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

রঞ্জন মহাপাত্র, কাঁথি: ডলফিনের পেট কেটে বের করা হচ্ছে একটি বাচ্চা ডলফিন। এই ছবি ভাইরাল হয়ে যাওয়ায় ভগবানপুর ২ ব্লকের উদবাদলের খাল থেকে উদ্ধার হওয়া ডলফিনের ময়নাতদন্তকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল পূর্ব মেদিনীপুরে। সেই ডলফিনের মৃত্যু কীভাবে ঘটল? গায়েই বা ক্ষত চিহ্ন হল কীভাবে? বিষয়গুলি জানতে ইতিমধ্যে বনদপ্তর জেলা প্রণি সম্পদ দপ্তরে মৃত ডলফিনকে ময়না তদন্তে পাঠায়। তারপরেই একটি ছবি ভাইরাল হয়। কিন্তু বনদপ্তর কোনও ভাবেই এই ছবির মান্যতা দিচ্ছে না।

বাজকুল রেঞ্জ অফিসার জানান, ময়নাতদন্ত করেছেন চিকিৎসক। এখনও রিপোর্ট আমাদের কাছে এসে পৌঁছয়নি। রিপোর্ট আসার পরেই বিষয়টি জানা যাবে। এদিকে বনদপ্তরের ব্যর্থতার কারনে ডলফিনের মৃত্যু ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা। কিন্তু প্রশ্ন উঠছে ডলফিনটি অন্তঃসত্ত্বা নয় বলে কেন এড়াতে চাইছে বনদপ্তর? এদিকে ডলফিনের এমন নির্মম মৃত্যুতে জনস্বার্থ মামলা করতে চলেছে কাঁথি ৩ব্লকের দইসাই এলাকার একটি সংগঠন। কাঁথি ৩ পঞ্চায়েত সমিতির বন ও ভূমি কর্মাধ্যক্ষ কনিষ্ক পন্ডা জানান, কেউ মামলা করতেই পারেন। কিন্তু ময়না তদন্তের রিপোর্ট আগে হাতে আসুক। তারপরেই তো বিষয়টি পরিষ্কার হবে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুরে খালে সমুদ্র থেকে উঠে আসে একটি ডলফিন। মাছ ধরার জালে আটকে পড়ে ডলফিনটি। তাকে দেখতে ভিড় জমায় স্থানীয় বাসিন্দারা। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বনকর্মী ও পুলিস। কিন্তু দেড় দিন লড়াই করেও বাঁচানো যায়নি ডলফিনটিকে। শনিবার হঠাৎই কালীনগরের নিতুড়িয়ার কাছে খালে ভেসে ওঠে ডলফিনের দেহ। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, খালে বসানো মাছ ধরার জালে ডলফিনের গায়ে আঘাত লাগে, তার জেরেই মৃত্যু হয় তার। দেহে জালের আঘাতের চিহ্নও মিলেছে। বনকর্মীদের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। শুধু তাই নয় উৎসাহী মানুষের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। আর এই ছবিটি ভাইরাল হওয়ার পরে বিষয়টি নিয়ে শোরগোল পড়ে গিয়েছে গোটা জেলা জুড়ে।

[আরও পড়ুন: পাখির চোখ উপনির্বাচন, নিজে গান বেঁধে কালিয়াগঞ্জে প্রচার মন্ত্রী রাজীবের]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং