১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

প্রকাশ্যে কর্তব্যরত কর্মীকে চড়, কাঠগড়ায় জলপাইগুড়ির স্বাস্থ্যকর্তা

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: May 5, 2020 11:31 am|    Updated: May 5, 2020 11:31 am

An Images

শান্তনু কর, জলপাইগুড়ি: স্বাস্থ্যকর্মীর সঙ্গে বচসা। চড় মারার অভিযোগ অতিরিক্ত জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের বিরুদ্ধে। স্বাস্থ্যকর্মীর অপরাধ, তিনি একটা নথি আরেকটা দপ্তরে সঠিক সময়ে পাঠাতে পারেননি। এই কারণে তাঁর উপর ক্ষুব্ধ হন ওই স্বাস্থ্যকর্তা। এই নিয়ে দুজনের মধ্যে বচসা হয়। অভিযোগ, এরপরই ওই স্বাস্থ্যকর্মীকে চড় মারেন আধিকারিক। যদিও এই বিষয়ে স্বাস্থ্যদপ্তর মুখ খোলেনি। তবে সূত্রের খবর, অভিযুক্তকে শোকজ করা হয়েছে।

ঠিক কী হয়েছিল? জানা গিয়েছে, জলপাইগুড়ি জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকের দপ্তরের এক আপার ডিভিশন ক্লার্ককে চড় মারেন জেলার অতিরিক্ত মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক দেবাশিস রায়। তিনি ওই স্বাস্থ্যকর্মীকে জেলা সদর হাসপাতালের সুপারের কাছে একটি চিঠি পৌঁছে দিতে বলেছিলেন দেবাশিস রায়। কিন্তু ওই স্বাস্থ্যকর্মী সুপারের হাতে চিঠি না দিয়ে তাঁর অনুপস্থিতিতে দপ্তরে দিয়ে আসেন। এতেই নাকি চটে যান স্বাস্থ্য আধিকারিক। তারপর অভিযোগ, তিনি প্রকাশ্যে অন্য কর্মীদের সামনে ওই স্বাস্থ্যকর্মীকে চড় মারেন। বিষয়টি নিয়ে সোমবার পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারি কর্মচারী ফেডারেশন (স্বাস্থ্য শাখা) জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রমেন্দ্রনাথ প্রামাণিকের দপ্তরে বিক্ষোভ দেখায়। ওই স্বাস্থ্য আধিকারিকের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা জানতে চাওয়া হয়।

[আরও পড়ুন: ​রাজ্যে ফেরার আবেদন, মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি অন্ধ্রপ্রদেশে আটকে থাকা স্বাস্থ্যকর্মীদের]

এবিষয়ে জলপাইগুড়ির মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক রমেন্দ্রনাথ প্রামাণিক কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি। এবিষয়ে উপ মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক (৩) দেবাশিস রায়ও কোনওরকম প্রতিক্রিয়া দেননি৷ তবে জানা গিয়েছে, ওই আধিকারিককে শোকজ করা হয়েছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement