২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

বাবুল হক, মালদহ: কানে মোবাইল নিয়ে রেললাইন ধরে হাঁটা বা চলন্ত ট্রেনের সামনে নিজেকে রেখে নিজস্বী তোলার ঝোঁক কতটা বিপজ্জনক, মাঝে মধ্যেই তার প্রমাণ মিলছে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সেগুলি ব্যক্তিগত বিপদ ডেকে আনে। কিন্তু মোবাইল কীভাবে বৃহৎ বিনষ্টিরও কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে, মালদহের বাস দুর্ঘটনা তারই প্রমাণ। বৃহস্পতিবার সকালে ভয়ংকর বাস দুর্ঘটনা ঘটল মালদহ-নালাগোলা রাজ্য সড়কে। যদিও দুর্ঘটনায় কোনও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি বলেই সূত্রের খবর।  

[আরও পড়ুন:সাপের কামড়ে মৃত্যু কিশোরীর, অশরীরীর আতঙ্কে বাড়ির বাইরে রাত্রিযাপন গ্রামবাসীদের]

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯ টা নাগাদ মালদহ থেকে নালাগোলার দিকে যাচ্ছিল একটি বেসরকারি বাস। হবিবপুর থানার হুরবাড়ি এলাকায় মালদহ-নালাগোলা রাজ্য সড়কের উপর হঠাৎই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের একটি খাদে উলটে যায় বাসটি। প্রাণ বাঁচাতে আর্তনাদ শুরু করেন বাসের যাত্রীরা। কোনওক্রমে নিজের চেষ্টাতেই বেড়িয়ে আসেন কেউ কেউ। আর্তনাদ শুনে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রাথমিকভাবে উদ্ধার কাজে হাত লাগায়। এরপর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় হবিবপুর থানার পুলিশ। এরপর আহত অবস্থায় প্রায় ৪৫ জন যাত্রীকে প্রথমে স্থানীয় বুলবুলচন্ডী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় আহত ২৫ জন যাত্রীকে মালদহ মেডিক্যাল কলেজে ভরতি করা হয়েছে।acci

পুলিশ সূত্রে খবর, বাসের যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা গিয়েছে, মোবাইল ফোনে ব্যস্ত ছিলেন বাসচালক। সেই কারণেই এই বিপত্তি। তবে এই বিষয়ে এখনও স্পষ্ট কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। মোবাইলে কথা বলতে বলতে গাড়ি চালানো নিষিদ্ধ। দণ্ডনীয় অপরাধ। এই নিয়ে প্রচার কম হয়নি। চলছে লাগাতার অভিযানও। তা সত্ত্বেও অনেক চালক নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে বিপদ ডেকে আনছেন বলে পুলিশের একাংশের অভিযোগ। তাঁদের মতে, বৃহস্পতিবার ওই বাসের চালক মোবাইলে ব্যস্ত থাকায় অন্যমনস্ক হয়ে পড়েছিলেন। তার জেরেই দুর্ঘটনা। তখন বাসটির গতি কত ছিল, সেই বিষয়েও তদন্তকারীরা এখনও নিশ্চিত হতে পারেননি।

[আরও পড়ুন:বিজেপি কর্মীর মৃত্যুতে কাঠগড়ায় তৃণমূল, দেহ আগলে বিক্ষোভে গেরুয়া শিবির]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং