BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

স্ত্রী ও সন্তানদের পুড়িয়ে মারতে বাড়িতে আগুন মদ্যপের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: April 24, 2019 6:38 pm|    Updated: April 24, 2019 6:38 pm

An Images

অরূপ বসাক, মালবাজার: স্ত্রী এবং ছেলেমেয়েকে পুড়িয়ে মারতে বাড়িতে আগুন লাগানোর অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি জলপাইগুড়ি জেলার মালবাজার মহকুমার দক্ষিণ ওদলাবাড়ির ডাঙাপাড়া এলাকার। তবে আগুন লাগানোর সময় স্ত্রীর ঘুম ভেঙে যায়। ফলে ব্যর্থ হয় তাঁর স্বামীর আগুন লাগানোর প্রচেষ্টা। ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত রফিদুল হক (৩৫)। তার স্ত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করছে মাল থানার পুলিশ।

[আরও পড়ুন-মাটি খুঁড়ে নাবালিকার কঙ্কাল উদ্ধার, ধর্ষণ ও খুনের অভিযোগে গ্রেপ্তার ১]

রফিদুলের স্ত্রী আঞ্জু বেগম (২৬)-এর অভিযোগ, প্রতিদিনের মত মঙ্গলবার রাতেও মদ খেয়ে বাড়িতে এসেছিল তাঁর স্বামী রফিদুল হক। বিষয়টি নিয়ে বচসা হতে তাঁকে মারধর করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় সে। এরপরই আঞ্জু বেগম দুই ছেলে এবং এক মেয়েকে নিয়ে ঘরের মধ্যে ঘুমিয়ে পড়েন।কিন্তু, রাত ২টা নাগাদ আবার মদ্যপান করে বাড়ি ফিরে আসে রফিদুল। তারপর ঘরের মধ্যে স্ত্রী ও সন্তানদের শুয়ে থাকতে দেখে বাইরে থেকে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে অভিযোগ। কিছুক্ষণ বাদে পোড়া গন্ধতে ঘুম ভেঙে যায় আঞ্জু বেগমের। বিষয়টি বুঝতে পেরে সন্তানদের নিয়ে ঘর থেকে বাইরে বেরিয়ে আসেন তিনি। সেই সুযোগে রান্নাঘরেও আগুন ধরিয়ে দেয় মদ্যপ রফিদুল।

[আরও পড়ুন- উপনির্বাচনে মোর্চার প্রতীক ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা, আদালতের রায়ে চাপে গুরুং-বিনয়রা]

আঞ্জু বেগমের চেঁচামেচিতে জড়ো হয়ে যায় আশপাশের লোকজন। তারপর সবার চেষ্টায় আগুন নিভিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। পরিস্থিতি দেখে ততক্ষণে পালিয়েছে অভিযুক্ত রফিদুল। এপ্রসঙ্গে আঞ্জু বেগম বলেন, “প্রায় ১৪ বছর ধরে রাত হলেই মদ খেয়ে বাড়িতে ঢুকে আমাকে মারধর করে। ভাঙচুর করে ঘরের জিনিসপত্রও। তবে মঙ্গলবার রাতে বিষয়টি চূড়ান্ত পর্যায়ে চলে গিয়েছিল। অল্পের জন্য আমরা প্রাণে বেঁচেছি। ঠিক সময় ঘুম না ভাঙলে পুরো বসতিতে আগুন ধরে যেত।”

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement